advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, কেরালা, তামিলনাড়ু রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত একটি অঞ্চলে (পদুচেরি) লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হচ্ছে। রোববার (২ মে) সকাল থেকে আসা ফলাফলে পশ্চিমবঙ্গে মমতা ব্যানার্জির তৃণমুল কংগ্রেস স্পষ্ট ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে।

mamata h

যদিও নন্দীগ্রামে ভোট গণনায় সাবেক সহকর্মী শুভেন্দু অধিকারীর চেয়ে পিছিয়ে রয়েছেন মমতা। তবে সরকার গঠনের প্রয়োজনীয় আসনে তার জয়ের আভাস মিলেছে। ফলে হ্যাটট্রিক জয় পেতে চলেছে তৃলমূল কংগ্রেস।

এনডিটিভি বলছে, পশ্চিবঙ্গের মোট ২৯৪ আসনের মধ্যে ২৯২টির বেসরকারি ফলাফল এসেছে। এতে মমতার তৃণমূল কংগ্রেস পেয়েছে ১৬৮টি আসন। বিপরীতে বিজেপি পেয়েছে ১২১টি। বামসহ অন্যান্যরা পেয়েছে তিনটি আসন।

রাজ্য সরকার গঠনে প্রয়োজন ১৪৮টি আসন, যেটি ইতোমধ্যে মমতার দল পেয়েছে বলে আনন্দবাজার পত্রিকার খবরেও বলা হয়েছে।

অন্যদিকে আসামে বিজেপি এগিয়ে রয়েছে। বেশ পিছিয়ে রয়েছে কংগ্রেস। এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, আসামে ১২৬ আসনের মধ্যে বিজেপি এগিয়ে আছে ৮৫ আসনে। কংগ্রেস এগিয়ে ৩৯ আসনে। এখানে সরকার গঠনে প্রয়োজন ৬৪ আসন। সুতরাং এখানে আবারো বিজেপিই সরকার গঠন করতে চলেছে।

mamota

কেরালায় বামফ্রন্ট নেতৃত্বাধীন জোট এলডিএফ এগিয়ে রয়েছে। পিছিয়ে আছে কংগ্রেস। এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, কেরালায় এলডিএফ ৮৮ আসনে এগিয়ে। কংগ্রেস এগিয়ে ৫০ আসনে। বিজেপি এগিয়ে রয়েছে ৪টি আসনে। এ রাজ্যে সরকার গঠনে ৭১ আসনে জয় প্রয়োজন, যা ইতিমধ্যে বামফ্রন্ট জোট অর্জন করেছে।

তামিলনাড়ুতে বিরোধী দল ডিএমকের নেতৃত্বাধীন জোট এগিয়ে। সেখানে পিছিয়ে এডিএমকে। এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, তামিলনাড়ুতে ২৩৪ আসনের মধ্যে ডিএমকের জোট ১৩৭ আসনে এগিয়ে রয়েছে। এডিএমকে এগিয়ে রয়েছে ৯৫ আসনে। এ রাজ্যে সরকার গঠনে প্রয়োজন ১১৮ আসন, যা বিরোধী জোট অর্জন করতে চলেছে।

এ ছাড়া পদুচেরিতে অল ইন্ডিয়া এনআর কংগ্রেস (এআইএনআরসি) নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট এগিয়ে রয়েছে। পিছিয়ে রয়েছে কংগ্রেস। এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, পদুচেরিতে ৩০ আসনের মধ্যে এনডিএ জোট এগিয়ে ১২ আসনে। কংগ্রেস এগিয়ে ৪ আসনে। অন্যান্যরা এগিয়ে একটিতে। সরকার গঠনে ১৬ আসনে জয় পেতে হবে। তবে এখনো ১৩ আসনের ফলাফল ঘোষণা হয়নি।