advertisement
আপনি দেখছেন

বিয়ের সকল আনুষ্ঠানিকতা প্রায় শেষ, শুধু মালাবদলটা বাকি। এটা সম্পন্ন হলেই দুজন হয়ে যাবেন দুজনার। ঠিক ওই মুহূর্তে কী মনে করে কনে বরকে ২-এর ঘরের নামতা বলতে বললেন। ভরা আসরে সবার চোখ বরের দিকে।

saudi men marriage foreigners

বর নামতা বলতে শুরু করলেন কিন্তু খেই হারিয়ে ফেললেন মাঝপথে এসে। মেয়ের সাফ কথা, যে ছেলে ২-এর ঘরের নামতা পারে না, আমি তাকে বিয়ে করতে পারবো না।

শেষ পর্যন্ত কনের জেদের কাছে হার মানলেন সবাই। বিয়ে ভেঙে দেওয়া হলো। গত ১ মে এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের মাহোবা এলাকায়।

এ নিয়ে একটি প্রতিবেদন ছেপেছে আনন্দবাজার পত্রিকা। জানা যায়, দুই পরিবার মিলেই বিয়ে ঠিক করা হয়েছে। তবে ছেলের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে লুকোচুরি খেলছিল তার পরিবার। তাতে মেয়ের সন্দেহ হয়। কিন্তু ছেলের সঙ্গে কথা বলার সুযোগও তাকে দেওয়া হচ্ছিল না। তাই সে বিয়ের আসরকেই ছেলের যোগ্যতা যাছাইয়ের উৎকৃষ্ট সময় ধরে নিয়েছে।

পাত্রীর ভাষ্য, অঙ্কে যে ছেলের প্রাথমিক জ্ঞান নেই, তাকে নিয়ে সংসার করা সম্ভব নয়। একটা অশিক্ষিত ছেলেকে জোর করে আমার ওপর চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছিল। আমি সেটা মেনে নেব কেন?