advertisement
আপনি দেখছেন

ইসরায়েলি একটি বিমানঘাঁটি ও রাসায়নিক কারখানা এবং দুটি আয়রন ডোম স্টেশনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। আজ শুক্রবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে প্রতিরোধ সংগঠনটি।

terrible attack on israel

পার্সটুডে জানায়, আক্রান্ত হাতজেরিম বিমানঘাঁটিটি ব্যবহার করে গাজায় বোমা হামলা চালিয়ে আসছে ইসরায়েলি বাহিনী। এটিতে ‘সিজ্জিল’ ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলা চালানোর কথা জানিয়েছে হামাসের সামরিক শাখা ইজাদ্দিন আল-কাসসাম ব্রিগেড।

জানানো হয়, আত্মঘাতী ‘শিহাব’ ড্রোন দিয়ে হামলা চালানো হয়েছে ইসরায়েলের নেজেভ মরু অঞ্চলের নাহাল ওজ কিবুৎজ রাসায়নিক কারখানায়।

এর আগে আত্মঘাতী কয়েকটি ড্রোন দিয়ে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে হামলা চালানোর কথা জানিয়েছিল হামাস। এতে দুটি আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আয়রন ডোম স্টেশনে আঘাত হেনেছে বলে জানানো হয়।

hamas sijjil rocket

আজ শুক্রবার সকালে হামাসের ছোড়া রকেট ইসরায়েলের আশকেলন শহরের একাধিক বহুতল ভবনে আঘাত করেছে। আরো কয়েকটি স্থানের স্থাপনায় আগুন ধরে যায় রকেট হামলায়। আশদোদ, সেদরত ও শা’আর হানেজেভে বাজানো হয় সাইরেন।

গতরাতে দুই পক্ষের মধ্যে প্রচণ্ড লড়াইয়ের মধ্যে কয়েক ঘণ্টায় ইসরায়েলে ২৫০টি রকেট ছুড়েছে হামাস। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ১৮০০টি রকেট ও ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে সংগঠনটি। এতে গতকাল পর্যন্ত ডজনখানেক ইসরায়েলি নিহত এবং বেশ কয়েক ডজন আহত হয়েছে।

অন্যদিকে, আজ সকালে ১৬০টি বিমান একযোগে গাজায় বোমা ফেলে ইসরায়েলি বাহিনী। গত সোমবার শুরু হওয়া ৫ দিনে শয়ে শয়ে বিমান হামলা চালিয়েছে দেশটি। এতে ​২৮ শিশুসহ ১১৩ ফিলিস্তিনি নিহত এবং আরো ৫৮০ জন আহত হন।