advertisement
আপনি দেখছেন

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের ঐতিহাসিক সম্পর্কের প্রশংসায় পঞ্চমুখ দেশটির সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ নারাভানে। তবে দুই দেশের স্থল সীমানা চুক্তির মাধ্যমে সীমান্ত বিরোধ মীমাংসার অনন্য দৃষ্টান্ত ‘কিছু’ দেশ বলপ্রয়োগের মাধ্যমে নষ্ট করার চেষ্টা করেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

bangladesh india flagবাংলাদেশ ও ভারতের পতাকা

গতকাল বুধবার নয়াদিল্লিতে সেন্টার ফর ল্যান্ড ওয়ারফেয়ার স্টাডিজের ‘ভারত-বাংলাদেশ: বন্ধুত্বের ৫০ বছর’ সেমিনারে এসব মন্তব্য করেন ভারতীয় সেনাপ্রধান। দেশটির লাদাখে চীনের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই এমন বক্তব্য দিলেন তিনি।

ঢাকা-দিল্লির স্থল সীমান্ত চুক্তি পারস্পরিক বোঝাপড়ার মাধ্যমে হয়েছে উল্লেখ করে জেনারেল মনোজ নারাভানে বলেন, গঠনমূলক আলোচনায় বিবাদমান সীমান্ত সমস্যার সমাধান করা হয়, যা অনন্য উদাহরণ তৈরি করেছে। এটি হয়েছে নির্দিষ্ট কিছু দেশ বলপ্রয়োগের মাধ্যমে প্রথাগত নিয়ম ও প্রটোকল উপেক্ষা এবং আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি অবজ্ঞা দেখিয়ে স্থিতাবস্থা বদলে দেয়ার চেষ্টার মধ্যেই।

manoj naravane indiaমনোজ নারাভানে, ফাইল ছবি

এই চুক্তিকে ‘পারস্পরিক শ্রদ্ধা, বিশ্বাস ও প্রতিশ্রুতির প্রতীক’ বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। চলতি বছর বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং ঢাকা-দিল্লির কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর পালিত হচ্ছে। এ নিয়ে একটি বই প্রকাশ করেছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান, যা মূলত একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা ও সৈন্যদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার সংকলন।

সেমিনারে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে দীর্ঘদিন ঝুলে থাকা পানি বণ্টনকে ‘আবেগপ্রবণ সমস্যা’ হিসেবে আখ্যায়িত করেন বাংলাদেশের হাই কমিশনার মুহাম্মদ ইমরান। পুরোনো এই সমস্যা সমাধানে মনোযোগী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। মুহাম্মদ ইমরান বলেন, গঙ্গার পানি বণ্টন সমস্যার সমাধান হলেও আরো কিছু অভিন্ন নদীর দিকে মনোযোগ দেয়া দরকার, সহানুভূতির সঙ্গে সেদিকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়া উচিত।