advertisement
আপনি দেখছেন

চাকরির আবেদনপত্রে হিজাব পরিহিত ছবি দিয়েছিলেন কয়েকজন নারী প্রার্থী। সে জন্য বাতিল হয়ে গিয়েছিল তাদের আবেদন। আবেদনপত্র বাতিল করার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আর্জি নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে গেলে, সেখানেও তাদের অপমানিত হতে হয়। এই ইস্যুতে মামলা হয় কলকাতা হাইকোর্টে।

indian womenহিজাব পরিহিত ছবি দেয়ায় আবেদন বাতিল হয়ে যায় অনেকের

পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডে কনস্টেবল পদে আবেদনের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছিল চলতি বছরের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসে। আবেদন করেন প্রায় ৮ লাখ চাকরি প্রার্থী। গত ২৬ সেপ্টেম্বর প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে অ্যাডমিট কার্ড প্রকাশ করা হয়েছিল।

অভিযোগ ওঠে, হিজাব পরে ছবি দেওয়ায় প্রায় ১ হাজার মুসলিম নারী প্রার্থীর আবেদন বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন কয়েকজন প্রার্থী।

west bengal police constableপশ্চিমবঙ্গের পুলিশ

সেই মামলার প্রেক্ষিতে গত সোমবার হাইকোর্ট জানিয়ে দেয়, যে মামলা দায়ের করা হয়েছে, তার ভিত্তিতে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের কনস্টেবল পদে নিয়োগ হবে। অর্থাৎ, পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের নিয়োগ প্রক্রিয়ার যে ফলাফল হবে, তা সংশ্লিষ্ট রিট পিটিশনের নির্দেশ মেনে করতে হবে।

পশ্চিমবঙ্গ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী, ছবিতে প্রার্থীর মুখ ঢেকে রাখা যাবে না। মুখ বা মাথা ঢেকে, চোখে সানগ্লাস পরে ছবি তোলার ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা আছে। যদিও মামলাকারীদের দাবি, পশ্চিমবঙ্গ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের ২০১৯ সালের নির্দেশিকায় এরকম কোনো নিয়ম ছিল না। নয়া নির্দেশিকায় যে নিয়ম আছে, তা আদতে সংবিধানের ২৫ ধারায় প্রদত্ত মৌলিক অধিকার লঙ্ঘন করছে।

মামলার শুনানিতে বিচারপতি অরিন্দম মুখোপাধ্যায় বলেন, আবেদনকারীদের দাবি, তাদের ছবি দেখেই আবেদনপত্র বাতিল করা হয়। অথচ ছবিতে প্রার্থীদের মুখ স্পষ্ট শনাক্ত করা যাচ্ছে।

অন্য কোনো বিতর্কিত বিষয় জড়িত না থাকায় কোনো হলফনামা ছাড়াই বিষয়টির নিষ্পত্তি হতে পারে বলে মনে করছেন বিচারপতি। আগামী বছরের ৬ জানুয়ারি এই মামলার শুনানি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।