advertisement
আপনি পড়ছেন

যুক্তরাষ্ট্রের জর্জটাউন ইউনিভার্সিটির অনুষ্ঠানে গিয়ে ফিলিস্তিনি এক শিক্ষার্থীর অভিনব প্রতিবাদের মুখোমুখি হয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন। ইউনিভার্সিটির শিক্ষারম্ভ ও সমাবর্তন অনুষ্ঠানের বক্তা ছিলেন ব্লিঙ্কেন। সমাবর্তন মঞ্চ থেকে গ্র্যাজুয়েট নুরান এ হামদানের নাম ডাকা হলে তিনি মঞ্চের সামনে গিয়ে ফিলিস্তিনি পতাকা মেলে ধরে ব্লিঙ্কেনের সামনে নাড়াতে থাকেন। এরপর সার্টিফিকেট নিয়ে তিনি প্রথামাফিক ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে করমর্দন না করেই মঞ্চ থেকে নেমে যান।

palestine nooran a hamdanমার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সামনে ফিলিস্তিনের ঐতিহ্যবাহী কেফিয়াহ পরে দাঁড়ানো জর্জটাউন ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা

কোভিড প্রাদুর্ভাব উপলক্ষে দুই বছর বিরতির পর এবারই প্রথম ওয়াশিংটন ডিসিস্থ জর্জটাউন ইউনিভার্সিটিতে সরাসরি সমাবর্তন শুরু হয়েছে। উপলক্ষটিকে প্রতিবাদের সুযোগ হিসেবে কাজে লাগিয়েছেন ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর আরব স্টাডিজ থেকে এম.এ. উত্তীর্ণ ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত শিক্ষার্থী নুরান এ হামদান।

অনুষ্ঠানের অতিথিদের আসন গ্রহণের পরপর নুরান ও তার ছয়জন সহপাঠী ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে নিহত ফিলিস্তিনি সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহর ছবি হাতে মঞ্চে উঠে পড়েন। এ সময় তারা শিরিনসহ সব ফিলিস্তিনিদের হত্যার ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্ত ও ইসরায়েলকে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক সহযোগিতা বন্ধের দাবিতে স্লোগান দেন।

পরে সার্টিফিকেট গ্রহণের জন্য সমাবর্তন মঞ্চে ডাকা হলে নুরান হামদান মঞ্চের সামনে গিয়ে ফিলিস্তিনি পতাকা নাড়াতে থাকেন। এরপর সার্টিফিকেট নিয়ে ইউনিভার্সিটি রেক্টর ও অন্যান্যদের সঙ্গে করমর্দন করলেও তিনি মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে পাশ কাটিয়ে যান।

অনুষ্ঠান শেষে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন মঞ্চ থেকে নেমে নুরান এ হামদানের সামনে গিয়ে বলেন, ‘আই হিয়ার ইউ’। এ সময় নুরান ‘তাহলে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীকে সহায়তা দেওয়া বন্ধ করুন’ বলে উঠলে ব্লিঙ্কেন স্থান ত্যাগ করেন।

পরে বিষয়টি নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেনকে ট্যাগ করে নুরান লিখেছেন- ‘জর্জটাউনে অত্যন্ত সংবেদনশীল একজন শিক্ষক আমাকে শিখিয়েছেন যে ওদের (ইসরায়েলিদের) হাতে ট্যাংক থাকলে আমাদের (ফিলিস্তিনিদের) হাতে আছে সময়। সেক্রেটারি ব্লিঙ্কেন, শিরিন আবু আকলেহসহ সব ফিলিস্তিনির জন্য ন্যায়বিচারের দাবি জানাই। আপনার সঙ্গে করমর্দন করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আমি গর্ববোধ করছি।’

তিনি আরও লেখেন, ‘ওদের কাছে ট্যাংক আর আমাদের হাতে সময় থাকার যে কথা বলেছি, ঠিক সেভাবেই ওদের আছে দখল আর আমাদের আছে প্রতিরোধ।’

এরপর আরবিতে লেখেন- ‘হানা ইয়াক্বুনু আ’সবুন আ’নকুম’ (এখানে আপনাদের কাছ থেকে আমরা দূরেই থাকলাম)।