advertisement
আপনি পড়ছেন

রাশিয়ার নৌ-অবরোধ মোকাবেলায় ইউক্রেনকে আধুনিক এন্টি-শিপ হারপুন কোস্টাল ডিফেন্স সিস্টেম (এইচসিডিসি) ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে সহায়তা করতে চায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সরাসরি বা ইউরোপীয় মিত্র দেশের মাধ্যমে তা ইউক্রেনে স্থানান্তর করা হবে। মার্কিন কর্তৃপক্ষের দেওয়া এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। বেশ কয়েকটি মার্কিন মিডিয়া আউটলেট খবরটি প্রকাশ করেছে। নেভাল নিউজ।

harpoon missileহারপুন মিসাইল

তিন মার্কিন কর্মকর্তা এবং কংগ্রেসের দুটি সূত্র জানিয়েছে, দুই ধরনের শক্তিশালী জাহাজ-বিরোধী ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে। তার মধ্যে হারপুন ক্ষেপণাস্ত্রটি বোয়িংয়ের তৈরি। আরেকটি হচ্ছে নেভাল স্ট্রাইক ক্ষেপণাস্ত্র। এটি কংসবার্গ ও রথিয়ন টেকনোলজিসের তৈরি।

যুক্তরাষ্ট্র বিবেচনা করছে, কোনো ইউরোপীয় মিত্র দেশের কাছে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো হস্তান্তর করে অথবা কোনো দেশের কাছে এই ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র থাকলে তা ইউক্রেনে সরাসরি মোতায়েন করা হবে।

destroyed ukraine 1ইউক্রেনে ধ্বংসযজ্ঞ

সূত্র জানাচ্ছে, ইউক্রেনের উপকূলে হারপুন ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করার ক্ষেত্রে কিছুটা প্রযুক্তিগত চ্যালেঞ্জ থাকতে পারে। কারণ হারপুন বেশিরভাগই সমুদ্রে ব্যবহৃত হয়। আর এটি যুক্তরাষ্ট্রের নেভাল এয়ার সিস্টেম কমান্ড পরিচালিত, তা সুপরিচিত ব্যাপার।

চলতি বছরের মার্চ মাসে নেভাল এয়ার সিস্টেম কমান্ড বোয়িংকে ৪৯৮ মিলিয়ন ডলার মূল্যের হারপুন কোস্টাল ডিফেন্স সিস্টেম প্রদান করে। তাইওয়ানে মোতায়েনের পরিপ্রেক্ষিতে চুক্তিটি হয়। যদিও ক্ষেপণাস্ত্রের কৌশলগত ব্যবহার এবং রক্ষণাবেক্ষণের ক্ষেত্রে কর্মীদের প্রশিক্ষণের প্রয়োজন।

যুদ্ধ শুরুর পর থেকে পশ্চিমা দেশগুলো ইউক্রেনের পক্ষে যুদ্ধ সরঞ্জাম সরবরাহ করছে। ইউক্রেন মূলত এসব সহায়তার অস্ত্র নিয়েই রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে এখনও টিকে আছে। সেইসঙ্গে ইউরোপীয় ইউনিয়নও মিলিয়ন মিলিয়ন সহায়তা অব্যাহত রেখেছে। এই সহায়তার বিরাট অংশ সরাসরি অস্ত্র ও অস্ত্র-সরঞ্জাম।

সর্বশেষ যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনের সহায়তায় ৪০ বিলিয়ন ডলারের এক বিশাল সহায়তা প্যাকেজ অনুমোদন করেছে। এই প্যাকেজ অনুমোদনে দেশটির বিভক্ত রাজনীতিতে এক বিরল ও নজিরবিহীন ঐক্য দেখা গেছে। অর্থাৎ যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক নেতারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে একাট্টা, তাতে কোনো সন্দেহ নেই।