advertisement
আপনি পড়ছেন

জ্বালানি সাশ্রয়ের জন্য শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্ট কিছু বৈঠক বাতিল করেছে। চলমান অর্থনৈতিক সংকট তথা বৈদেশিক মুদ্রার ঘাটতির কারণে দেশটিতে পেট্রোল সরবরাহে বিশাল ঘাটতি দেখে দিয়েছে। খবর দ্য নিউজ।

sri lankas parliamentশ্রীলঙ্কার পার্লামেন্ট

খবরে বলা হয়, একই কারণে খাদ্য, তেল ও ওষুধ আমদানি করতে পারছেন না ব্যবসায়ীরা। এর ওপর মূল্যস্ফীতি এবং নিয়মিত ব্ল্যাকআউট দক্ষিণ এশিয়ার দেশটির ২২ মিলিয়ন মানুষের জীবন দুর্বিষহ করে তুলেছে।

এমন অবস্থায় অপ্রয়োজনীয় পেট্রোল ব্যবহার এড়াতে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার অধিবেশন বাতিলের সিদ্ধান্ত নেন পার্লামেন্ট সদস্যরা। কয়েকদিন আগে একই কারণে কর্তৃপক্ষ স্কুল এবং কিছু সরকারি অফিস বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

line for oilশ্রীলঙ্কায় তেলের জন্য বিশাল লম্বা লাইন

দেশটিতে গত বৃহস্পতিবার একটি পেট্রোলের চালান আসার কথা ছিল। কিন্তু বিলম্বিত হওয়ায় জ্বালানি মন্ত্রী কাঞ্চনা বিজেসেকেরা গাড়ি চালকদের ভ্রমণ কমানোর অনুরোধ করেন।

কলম্বোয় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ফুয়েল পাম্প স্টেশনগুলোতে এখন সীমিত পরিমাণে পেট্রোল বিতরণ করা হবে।

গাড়িচালকরা জ্বলানি নেওয়ার জন্য কয়েকদিন ধরে লাইনে অপেক্ষা করছেন। লাইনে অপেক্ষামান থাকা অবস্থায় কয়েকজনের মৃত্যুর খবরও জানা গেছে।

উল্লেখ্য, দেশের খারাপ অর্থনৈতিক অবস্থার দরুন দেশের জনগণ বিক্ষোভে নামে। এর জেরে দেশটির মন্ত্রিসভার পতন ঘটে। নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন রনিল বিক্রমাসিংহে।