advertisement
আপনি পড়ছেন

রাশিয়ার আক্রমণের মুখে ইউক্রেনকে যতদিন দিন দরকার হয়, ততদিন সমর্থন চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন জি-৭ নেতারা। এক বিবৃতিতে তারা বলেন, আমরা আর্থিক, মানবিক, সামরিক এবং কূটনৈতিক সহায়তা প্রদান অব্যাহত রাখব এবং যতক্ষণ সময় লাগবে ইউক্রেনের পাশে থাকব। সোমবার দক্ষিণ জার্মানিতে শীর্ষ সম্মেলন থেকে জি-৭ নেতারা এই প্রতিশ্রুতি দেন। খবর টিআরটি ওয়ার্ল্ড।

g7 leaders vow to stand with ukraine for as long as it takes

কিয়েভ থেকে ভিডিও কনফারেন্সে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সাথে নেতারা দুই ঘণ্টা কথা বলেন। সম্মেলন থেকে বিপর্যস্ত ইউক্রেন জাতির সাথে সংহতি প্রকাশ করে নেতারা একটি শক্তিশালী বার্তা দেন।

রাশিয়াকে উদ্দেশ্য করে জি-৭ নেতারা বলেছেন, বিশ্বব্যাপী খাদ্য সংকট দূর করতে মস্কোকে অবশ্যই শস্যের চালান ইউক্রেন ছেড়ে যাওয়ার অনুমতি দিতে হবে। শর্ত ছাড়াই ইউক্রেনের কৃষি ও পরিবহন অবকাঠামোর ওপর হামলা বন্ধ করতে হবে, যাতে কৃষ্ণসাগরের ইউক্রেনীয় বন্দরগুলো থেকে কৃষিপণ্য নিয়ে জাহাজগুলো সহজে ছেড়ে যেতে সক্ষম হয়।

নেতারা বলেন, আমরা রাশিয়াকে দায়িত্বশীল আচরণ ও সংযম প্রদর্শনের আহ্বান জানাচ্ছি। রাশিয়ায় নিয়ে যাওয়া ইউক্রেনীয়দের দেশে ফেরার অনুমতি দিতে হবে।

এদিকে জেলেনস্কি রাশিয়ার আগ্রাসন বন্ধ করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত রাখতে বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। পাশাপাশি মস্কোর ওপর পশ্চিমা মিত্রদের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা জারি রাখার আহ্বান জানান জেলেনস্কি।

জেলেনস্কি খুব স্পষ্ট করে বলেছেন, এখন আলোচনার সময় নয়। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রনের কার্যালয়ও জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক সহায়তা অব্যাহত থাকবে। ইউক্রেন যখন মনে করবে, তখন আলোচনায় বসতে পারবে।

এদিকে জেলেনস্কি পরে তার টেলিগ্রাম পোস্টে বলেন, রাশিয়ান তেলের দাম সীমাবদ্ধ করতে পুতিনকে চাপ দিতে জি-৭ নেতাদের আহ্বান জানিয়েছি। কারণ জ্বালানির রাজস্ব রাশিয়া যুদ্ধে ব্যবহার করছে। কাজেই জ্বালানি রপ্তানি সীমাবন্ধ করতে পারলে রাশিয়া কাবু হতে বাধ্য।