advertisement
আপনি দেখছেন

আওয়ামী লীগের আসন্ন জাতীয় কাউন্সিলে সভাপতির পদ ছাড়া যে অন্য যেকোন পদে পরিবর্তন হতে পারে বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার ধানমণ্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের দপ্তর উপকমিটির এক সভায় এ কথা জানান তিনি।

obaidul kader 31.10

কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের আসন্ন জাতীয় সম্মেলনে শুধু একটি পদে কোন ধরনের পরিবর্তন হবে না। আর সেটি হলো বর্তমান সভাপতি শেখ হাসিনার পদ। এ পদে তিনিই বহাল থাকবেন। এছাড়া অন্য যেকোন পদে যেকোন ধরনের পরিবর্তন হতে পারে। কোন কোন পদে পরিবর্তন হবে বা হতে পারে সেটি নির্ধারণ করবেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ছাড়া আর কেউ দলের জন্য অপরিহার্য নয়।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি আন্দোলনের ডাক দিয়ে বারবার ব্যর্থ হয়েছে। তাই দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। দেশে একটি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে তারা ঘোলাপানিতে মাছ শিকার করতে চায়। কিন্তু বিএনপি এসব করে এখন আর সফল হবে না। কারণ আওয়ামী লীগ অতীতের তুলনায় এখন অত্যন্ত সুশৃঙ্খল, সুগঠিত ও শক্তিশালী একটি দল। কেউ দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চাইলে আওয়ামী লীগ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তার দাঁতভাঙ্গা জবাব দেবে।

সেতুমন্ত্রী আরো বলেন, বিএনপি বিভিন্ন ইস্যুতে বারবার আন্দোলনের ডাক দিয়েছে। কিন্তু দেশের জনগণ তাতে সাড়া দেয়নি। তাই তারা বিভিন্ন মহলকে বিভিন্নভাবে উসকানি দিচ্ছে। এমনকি হঠাৎ করে বাজারে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির পেছনেও বিএনপির ইন্ধন রয়েছে। তারা পেছন থেকে উসকানি দিচ্ছে। সরকার তাদের অনেককেই চিহ্নিত করেছে। অবশ্যই তাদের শাস্তি দেয়া হবে।

আগামী ২০ ও ২১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিল সফল করার লক্ষ্যে আয়োজিত এ সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন- দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও দফতর কমিটির আহ্বায়ক পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য, ড. আবদুস সোবহান গোলাপ এমপি, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেন, ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।