advertisement
আপনি দেখছেন

গাজীপুরে একটি পোশাক কারখানায় অফিস চলাকালীন সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। গত ৯ ফেব্রুয়ারি মাল্টিফ্যাবস লিমিটেড নামের এই ফ্যাক্টরিতে এ সংক্রান্ত একটি নোটিশ জারি করা হয়।

garments worker new

সেখানে উল্লেখ করা হয়, ‘মাল্টিফ্যাবস লিমিটেডে কর্মরত সকল স্টাফদের প্রতিদিন মসজিদে গিয়ে (যোহর, আসর ও মাগরিব) নামাজ পড়তে হবে এবং পাঞ্চ মেশিনে ফিঙ্গার পাঞ্চ করতে হবে। যদি কোনো স্টাফ মাসে ৭ ওয়াক্ত পাঞ্চ করে নামাজ না পড়েন, সেক্ষেত্রে বেতন হইতে ১ দিনের সমপরিমাণ হাজিরা কর্তন করা হবে।’

এ ব্যাপারে প্রতিষ্ঠানটির অপারেশন্স বিষয়ক পরিচালক মেসবাহ ফারুকী বিবিসিকে জানান, এখানে যারা কাজ করেন তাদের বেশিরভাগই ইসলাম ধর্মের অনুসারী। এতদিন তারা বিক্ষিপ্তভাবে নামাজ পড়তেন। তা ঠিক করতেই এমন সিদ্ধান্ত। তাছাড়া কর্মীদের মধ্যে মতভেদ-দূরত্ব কমানোর একটি উপায় হিসেবে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এখানে বিভিন্ন মতভেদের মানুষ আছেন। সবাইকে টিম হিসেবে কাজ করতে হয়। কিন্তু দেখা যায়, ফেব্রিক ডিপার্টমেন্টের সাথে নিটিং সেক্টরের কোনো একটা সমস্যা লেগে আছে। তখন একে অপরের ওপর দোষারোপ চলতেই থাকে। এটার সমাধান হিসেবে মসজিদে একসঙ্গে নামাজ পড়া একটা মাধ্যম। কারণ এর মাধ্যমে কিছু সময় তারা একসঙ্গে কাটাতে পারবে, এতে দূরত্বটাও কমে আসবে।

এদিকে, এ ধরনের নির্দেশনাকে বাংলাদেশের সংবিধান বিরোধী বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, সংবিধানে উল্লেখ করা আছে ধর্ম কারো ওপর চাপিয়ে দেয়া যাবে না। কোনো আইন দিয়েই এটা বাধ্যতামূলক করা যাবে না। ইসলাম ধর্মতেও এ ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা আছে।

গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরামের সভাপতি মোশরেফা মিশু বলেন, বাংলাদেশে পোশাক শিল্পে অনেক সমস্যা থাকার পরও ক্রেতারা মুখ ফিরিয়ে নেয়নি। এখন কর্মীদের বাধ্যতামূলক নামাজ পড়ানোর ঘটনা বিদেশি ক্রেতাদের মধ্যে বাংলাদেশ সম্পর্কে নেতিবাচক ইমেজ তৈরি করতে পারে।

প্রসঙ্গত, সেরা রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত কোম্পানিটির ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্য অনুযায়ী জাপান, রাশিয়া ও আমেরিকা অঞ্চলের বেশ কিছু দেশে তাদের ব্যবসা। ২০১৬ সালে তাদের রপ্তানি আয় ছিল ৯০ মিলিয়ন ডলার। মূলত গেঞ্জি কাপড়ের পোশাক তৈরি করা হয় কোম্পানিটিতে। প্রতি মাসে তাদের রপ্তানি ১৮ লাখ পিস পোশাক।