advertisement
আপনি দেখছেন

ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন দাবি করে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, মেয়র পদ বড় নয়, তার কাছে রাজনীতিটাই বড়।

agm nasir uddin

তারা ভাষায়, ‘মেয়রের পদ বড় না, রাজনীতিটাই বড়। কেউ যদি বলতো তিনি মেয়র হতে চান, তাহলে আমি নিজেই পদ ছেড়ে দিতাম। কিন্তু আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে দলই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শতভাগ মিথ্যাকে প্রতিষ্ঠিত করার কোনো মানে হয় না। মনে রাখতে হবে, আমরা অনেক আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে তৈরি হয়েছি। আরেকজন আ জ ম নাছির তৈরি করতে অনেক বছর সময় লাগবে।’

মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় চসিক নির্বাচনে পুনরায় মনোনয়ন না পাওয়া প্রসঙ্গে আ জ ম নাছির উদ্দীন এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, মেয়র পদে দলের (আওয়মী লীগ) পক্ষ থেকে মনোনয়ন না পাওয়ায় তিনি কোনোভাবেই হতাশ বা বিক্ষুব্ধ নন। তবে একটি বিষয় তিনি কষ্ট পেয়েছেন। যে দলের জন্য নিজের জীবন-যৌবন সব উৎসর্গ করেছেন, সে দলের কর্মীরাই তাকে আজ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের খুনির দোসর বানাতে উঠেপড়ে লেগেছে।

agm nasir uddin pic controversy

তিনি আক্ষেপ করে আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনি কর্নেল (অব.) রশিদের সভায় তিনিই প্রথম পরিকল্পনা করে হামলা চালিয়েছিলেন। ফ্রিডম পার্টির নেতা-কর্মীদের চট্টগ্রাম থেকে তাড়িয়েছিলেন। ১৯৭৬ সালের জানুয়ারি মাসে তারা পাঁচ-ছয়জনই প্রথম মিছিল করেছিলেন। অথচ আজ তাকেই বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দোসর বানানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, চসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরুর পর থেকে দলের নেতাকর্মীরা নাছিরের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করে। সঙ্গে প্রচারণা চালায়, নাছিরের সাথে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি লে. কর্নেল সুলতানের পরিবারের সদস্যের ব্যক্তিগত ও ব্যবসাসিক সম্পর্ক রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে নাছির বলেন, গত তিন দিন আগে একজন তাকে এই ছবিটি দেখিয়েছে। এটি নগরীর অক্সিজেন এলাকায় একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উদ্বোধনের সময় তোলা। এ সময় কে বা কারা তার পেছনে দাড়ানো ছিলো তা তিনি জানেন না। এমনকি তাদের সঙ্গে তার দূরতম কোন সম্পর্কও নেই।