advertisement
আপনি দেখছেন

বঙ্গবন্ধুর সব খুনির বিচারের দাবিতে গত ৪৫ বছর ধরে চুল কাটছেন না জহির উদ্দিন (৬৭)। এমনকি এই সময়ের মধ্যে মাথায় তেল-চিরুনি পর্যন্ত দেননি তিনি। মুক্তিযোদ্ধা হতদরিদ্র জহিরের বাড়ি নওগাঁর রানীনগরে।

zahi uddin

উপজেলার আনালিয়া খলিসাকুড়ি গ্রামের বছির উদ্দিনের ছেলে জহির উদ্দিন। মুক্তিযোদ্ধা হয়েও সংশ্লষ্টদের ‌'পয়সা দিয়ে ম্যানেজ' করতে না পারায় সরকারি কোনো সুযোগ-সুবিধা পাননি।

সরেজমিনে দেখা যায়, জহির উদ্দিন মাটির একটি ঘরে বসবাস করছেন। তার শোয়ার ঘরের চারদিকে বঙ্গবন্ধুর ছবি রয়েছে। সেইসঙ্গে মাটির দেয়ালে সাজানো রয়েছে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সময়ের নানা কর্মসূচির ব্যানার ও পোস্টার।

নিজের পৈতৃক জমি না থাকায় ঘরজামাই থাকছেন জহির উদ্দিন। বয়সের ভারে শারীরিকভাবে দূর্বল হয়ে পড়া এই মানুষটি সম্প্রতি বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য কামনা করে দোয়া মাহফিলও করেন।

জহির উদ্দিনের ভাষ্য, বঙ্গবন্ধুর সব খুনির শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত মাথার চুল কাটবেন না, চুলে তেলও দেবেন না। গত ৪৫টি বছর ধরে চুলের যত্ন না নেয়ায় মাথায় জট বেঁধেছে। তারপরেও নিজ প্রতিজ্ঞায় অটল রয়েছেন তিনি।

জহির উদ্দিনের সহযোদ্ধা শামসুর রহমান বলেন, জহির একাত্তরের প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা। আমার সঙ্গে থেকে যুদ্ধ করেছেন। তিনি আবেদন করলেও রহস্যজনক কারণে সরকারি কোনো সুযোগ-সুবিধা পাননি। আর্থিক অভাব-অনটনের মধ্যেই কষ্টে জীবনযাপন করছেন তিনি।