advertisement
আপনি দেখছেন

ঢাকা মেডিকেল কলেজের সামনে পিঠা বিক্রি করেন মোহাম্মদ হান্নান (৫০)। দুই ছেলেও ঘুরে ঘুরে ঝালমুড়ি বিক্রি করে ঢামেকেরই আশপাশে। কিন্তু দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হলে বন্ধ হয়ে যায় বাবা-ছেলেদের বেচাবিক্রি। উপার্জন হারিয়ে যখন না খেয়ে থাকার জোগাড় তখন মরার ওপর খাড়ার ঘায়ের মতো বাড়িওয়ালা বারবার ভাড়া চাইলে লাগল। এক পর্যায়ে বাবা-ছেলেকে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে বাড়িওয়ালা।

landlord razuঅভিযুক্ত বাড়িওয়ালা রাজু আহমেদ (ডানে) ও তার ভাতিজা সোহান

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পুরান ঢাকার হোসনী দালানের শিয়া গলিতে এই ঘটনা ঘটে। আহত মোহাম্মদ হান্নান ও তার দুই ছেলেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদিকে অভিযুক্ত বাড়িওয়ালা রাজু আহমেদ ও তার ভাতিজা সোহানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশের চকবাজার জোনের সহকারী কমিশনার ইলিয়াস হোসেন বলেন, গত ৫ বছর ধরে রাজু আহমেদের বাড়ির নিচতলায় ভাড়া থাকেন মোহাম্মদ হান্নান ও তার পরিবার। ভাড়া দিতে কখনো কোনো সমস্যা করেননি। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে উপার্জন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় গত ৩ মাস ভাড়া দিতে পারেননি। ভাড়াটিয়া মোহাম্মদ হান্নান পরে দেবেন বলে অনেক অনুরোধ করলেও তা মানেননি বাড়িওয়ালা। একপর্যায়ে ভাতিজাকে নিয়ে হান্নান ও তার পরিবারের ওপর চড়াও হন।

ইলিয়াস হোসেন আরো বলেন, আহতের চিকিৎসার সম্পূর্ণ ব্যায়ভার পুলিশ কাঁধে তুলে নিয়েছে পুলিশ। ওদিকে মামলা করা হয়েছে বাড়িওয়ালা রাজু আহমেদ ও তার ভাতিজার বিরুদ্ধে। আজ (বুধবার) তাদেরকে আদালতে পাঠানো হবে।