advertisement
আপনি দেখছেন

রাতে ভোট হওয়ার কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। পাবনা-৪ আসনের উপ-নির্বাচন উপলক্ষে আজ বুধবার এ কথা বলেন তিনি।

cec in pabnaপাবনায় সিইসি

পাবনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নির্বাচন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক এক সভায় যোগ দেয়ার আগে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ব্যালট পেপার সকালে যাবে। কাজেই রাতে ভোট হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ভোটকেন্দ্রে ব্যালট পেপার যাবে সকালে। সুতরাং রাতে ভোট হওয়ার কোনো সুযোগই নেই। নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কোনো কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও উল্লেখ নূরুল হুদা। 

cec in pabna innerপাবনায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বৈঠকে সিইসি

এরই মধ্যে সুষ্ঠু নির্বাচনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে জানিয়েছে তিনি বলেন, এই উপ-নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ করতে নির্বাচন কমিশন (ইসি) গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ অনুযায়ী সব ব্যবস্থা নিচ্ছে।

সিইসি বলেন, সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা থাকায় গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্যই করোনার মহামারির মধ্যেও নির্বাচন করতে হচ্ছে। যাবতীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনেই আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর পাবনা-৪ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। প্রার্থীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখারও আহ্বান জানান এম নূরুল হুদা।

পরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নির্বাচন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক সভায় যোগ দেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।

উল্লেখ্য, সাবেক ভূমিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য শামসুর রহমান শরীফ গত ২ এপ্রিল মারা যাওয়ায় আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। উপ-নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাস, বিএনপির সমর্থিত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব এবং জাতীয় পার্টির রেজাউল করিম।

sheikh mujib 2020