advertisement
আপনি দেখছেন

বিশেষ ফ্লাইটে ইতালি যাওয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর থেকে সেখানকার পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হচ্ছে। এসব প্রবাসীদের বিরুদ্ধে ভুয়া করোনা সার্টিফিকেট নেয়ার অভিযোগের পর এবার ভুয়া রেসিডেন্ট করারও অভিযোগ উঠেছে। সেজন্য অন্তত ৬০০ প্রবাসী বাংলাদেশিকে খুঁজছে দেশটির পুলিশ।

italy coronavirus dead

জানা গেছে, এসব প্রবাসীর প্রতি দুই জনের মধ্যে একজনের ইতালির রেসিডেন্ট সার্টিফিকেট ভুয়া। তাই তাদের গ্রেপ্তার করতে খুঁজছে পুলিশ।

এদিকে ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বাংলাদেশে প্রায় ১৫ হাজার প্রবাসী আটকা পড়েছেন। তাদের অধিকাংশই ইতালির আনকোনা এবং ভেনিসের জাহাজ শিল্পে কর্মরত ছিলেন। এখন তাদের চাকরি হারানোর শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

ইতালির স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়, আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ইতালিতে জরুরি অবস্থার সময়সীমা বাড়ানোর বিষয়ে সংসদে সিদ্ধান্ত হতে পারে। পাশাপাশি বাংলাদেশসহ ১৩টি দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগের ব্যাপারে আগামী ১৪ জুলাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে।

italy corona

এ বিষয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তে বলেন, এখনো সরকার জরুরি অবস্থা বাড়ানোর ঘোষণা দেয়নি। সবার সম্মতিক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। জরুরি অবস্থা জারি হলে প্রয়োজন অনুযায়ী যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবো।

অন্যদিকে, ইতালি ফেরা প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাধ্যমে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ফের ছড়িয়ে পড়ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত একদিনের ব্যবধানে রোমের বাংলাদেশি অধ্যুষিত তরপিনাত্তারায় বেশ কয়েকজন প্রবাসী নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। এ ছাড়া লাৎসিও বিভাগে নতুন করে শনাক্ত ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগীর মধ্যে ৮ জনই বাংলাদেশি। এর ফলে অন্যান্য প্রবাসীর মধ্যে চরম উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে।

sheikh mujib 2020