advertisement
আপনি পড়ছেন

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকো রাজ্যে গত কয়েক মাসে টার্গেট কিলিংয়ের শিকার চার মুসলিম ব্যক্তির হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। পুলিশ বলছে, সম্ভবত তারা হেট ক্রাইমের শিকার হয়েছেন। খবর আল জাজিরা।

biden 6মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন

গতকাল রোববার এক টুইটে বাইডেন লেখেন, নিউ মেক্সিকো রাজ্যের আলবুকার্কে চার মুসলিম ব্যক্তির হত্যাকাণ্ডে আমি ক্ষুব্ধ ও দুঃখিত। আমরা সম্পূর্ণ তদন্তের জন্য অপেক্ষা করছি। আমরা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের জন্য প্রার্থনা করছি এবং প্রশাসন মুসলিম সম্প্রদায়ের সাথে দৃঢ়ভাবে অবস্থান নিয়েছে। আমেরিকায় এই ঘৃণ্য হামলার কোনো স্থান নেই।

নিউ মেক্সিকো শহরে গত ৯ মাসে চারজন মুসলিমের খুনের ঘটনা ঘটেছে। তাদের মধ্যে সর্বশেষ ব্যক্তি খুন হয়েছেন গত শুক্রবার সন্ধ্যায়। তবে এ ব্যাপারে কারা দায়ী, তার কিছু জানা যায়নি। পুলিশসহ দেশটির একাধিক কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এসব খুনের ঘটনায় তদন্ত শুরু করছে। এসব ঘটনায় শহরের মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।

men pray over the graveনিহতদের কবর জিয়ারত করছেন এক ব্যক্তি

নিউ মেক্সিকোর গভর্নর মিশেল লুজান গ্রিশাম এসব খুনের ঘটনাকে ‘টার্গেট কিলিং’ বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, আলবুকার্ক ও বৃহত্তর নিউ মেক্সিকোর মুসলিম সম্প্রদায়কে সমর্থন করার জন্য আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা চালিয়ে যাব।

গত শনিবার এক টুইটে তিনি বলেন, এভাবে মুসলমানদের টার্গেট কিলিংয়ের ঘটনা একেবারে হতাশাজনক ও অসহনীয়। এসব ঘটনা তদন্তে তিনি আলবুকার্কে অতিরিক্ত পুলিশ কর্মকর্তা নিয়োগ দিয়েছেন।

নিউ মেক্সিকোর আলবুকার্কের পুলিশ প্রধান হ্যারল্ড মেডিনা গত শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সর্বশেষ খুনের সঙ্গে সম্ভবত আগের তিনটি খুনের সম্পর্ক আছে। এর আগে নিউ মেক্সিকোর পুলিশ বলেছিল, গত ৯ মাসে খুন হওয়া অন্য ৩ মুসলিম ব্যক্তি সম্ভবত তাদের ধর্ম ও বর্ণের জন্য কারো টার্গেট কিলিংয়ের শিকার হয়েছেন।

জানা গেছে, ২৬ জুলাই এবং ১ আগস্ট আলবুকার্কে গুলিতে নিহত দুই ব্যক্তি একই এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। এছাড়া গত বছরের ৭ নভেম্বর একজন আফগান অভিবাসীর খুনের বিষয়টিও এদের খুনের ঘটনার সাথে মিলে যায়।

নিউ মেক্সিকো রাজ্য পুলিশ, ফেডারেল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই) এবং ইউএস মার্শাল সার্ভিস এসব হত্যার তদন্ত করছে। যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম মুসলিম নাগরিক অধিকার গোষ্ঠী, দ্য কাউন্সিল অন আমেরিকান-ইসলামিক রিলেশন ঘোষণা করেছে, যে ব্যক্তি হত্যাকারী বা খুনিদের গ্রেপ্তারে সহায়তা করে এমন কোনো তথ্য দিতে পারবে তাকে ১০ হাজার ডলার পুরস্কার দেওয়া হবে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর