advertisement
আপনি পড়ছেন

ইনজেকশন বা খাওয়ার ট্যাবলেট নয়, ইনহেলারের মাধ্যমে নেওয়া যায় এমন করোনার টিকা অনুমোদন দিয়েছে চীন। দেশটির বায়োটেক কোম্পানি ক্যানসিনো আবিষ্কার করেছে মুখ দিয়ে শ্বাসের মাধ্যমে নেওয়ার এই করোনা টিকা। খবর বিবিসি।

china approves inhaled covid vaccineকরোনার ইনহেলার টিকা অনুমোদন চীনে

মহামারি করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত বিশ্বে প্রথম করোনার টিকা এসেছে ইনজেকশন হিসেবে। কোনো কোনো দেশ সম্প্রতি খাওয়ার ট্যাবলেটও অনুমোদন দিয়েছে। অনেক দেশে ট্রায়াল শুরু হয়েছে করোনারোধী নাকের ড্রপেরও। তবে চীন বিশ্বে প্রথম দেশ, যারা মুখ দিয়ে শ্বাস (ইনহেলার) নেওয়ার করোনা টিকা অনুমোদন দিলো।

চীনের বায়োটেক কোম্পানি ক্যানসিনো কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, করোনার ইনজেকশনের মাধ্যমে নেওয়া টিকার একই উপাদান রয়েছে তাদের  ইনহেলার ভ্যাকসিনে। তবে ইনজেকশনের চেয়ে ইনহেলার মাধ্যম অনেক বেশি কার্যকরী।

চীনা গবেষকরা বলছেন, জেনেটিক কোডের বাহক হিসেবে একটি নিরীহ অ্যাডেনোভাইরাস ব্যবহার করে এই টিকা তৈরি করা হয়েছে, যা শরীরকে কোভিডের সঙ্গে দ্রুত লড়াই করতে সহায়তা করবে। মাত্র একবার শ্বাস নেওয়ার মাধ্যমেই এ টিকা গ্রহণ করা যাবে। শ্বাস নেওয়ার সময় মুখে একটি মিহি কুয়াশার মতো অনুভব হবে।

ক্যানসিনোর এই ইনহেলার ভ্যাকসিনকে বুস্টার ডোজ হিসেবে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দিয়েছে চীনের জাতীয় ওষুধ পণ্য প্রশাসন।  

গবেষকদের মতে, করোনা আক্রান্তের বেশি ভাগ ক্ষেত্রেই ভাইরাস দ্রুত ফুসফুসে সংক্রমণ ঘটায়। এই সংক্রমণের কারণেই ক্রমশ শ্বাসকষ্ট বাড়তে থাকে। এ সময় সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না এলে শরীরে অক্সিজেনের অভাব দেখা দেয় এবং রোগী ধীরে ধীরে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন। অর্থাৎ, অধিকাংশ ক্ষেত্রে প্রথমেই মানুষের শ্বাসযন্ত্র আক্রান্ত হচ্ছে করোনায়।

চীনা গবেষকরা বলছেন, মুখে শ্বাস নেওয়ার মাধ্যমে করোনার টিকা গ্রহণ করলে তা সর্বপ্রথম ফুসফুসেই প্রবেশ করবে। যা অত্যন্ত সুফল দেবে শুরু থেকেই।

এদিকে একই লক্ষ্য নিয়ে যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকরা নাসাল স্প্রে ভ্যাকসিন পরীক্ষানিরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছেন। বিজ্ঞানীরা বলছেন, নাকের ড্রপের মাধ্যমে ব্যবহার উপযোগী করোনার টিকা সবার আগে নাক ও শ্বাসনালীতে কোভিড প্রতিরোধী হিসেবে শরীরে প্রবেশ করবে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর