আপনি পড়ছেন

আবু কাউছার ওরফে অনিক, কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি। ধর্ষণের একটি মামলায় তিনি জামিন পেলেও একই দিন আরেকটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

abu kawsar anikকুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আবু কাউছার ওরফে অনিক

কারাগারে থাকা অনিককে রোববার (২ অক্টোবর) সকালে একটি ধর্ষণ মামলায় কুমিল্লার ১ নম্বর আমলি আদালতের সিনিয়ার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজি আব্বাস উদ্দিন জামিন দেন। তবে একই দিন আরেকটি আমলি আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফারহানা সুলতানা হত্যা মামলায় অনিককে গ্রেপ্তার দেখানোর আদেশ দেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, গত ৩১ আগস্ট কুমিল্লার একটি আবাসিক হোটেলে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে অনিকসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়। মামলার পর গা ঢাকা দেন অনিক। ২৪ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার থেকে র‌্যাব তাকে গ্রেপ্তার করে। সেই মামলায় জামিনের জন্য আবেদন করলে রোববার অনিকের জামিন মঞ্জুর করেন আদালত।

এদিকে ২৯ সেপ্টেম্বর কুমিল্লার দেবীদ্বারের শান্ত হত্যা মামলার আসামি অনিককে গ্রেপ্তার দেখানোর জন্য আদালতে আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক তৌহিদুল ইসলাম। আদালত সেই আবেদন মঞ্জুর করেন। বিষয়টি অনিকের আইনজীবী তানভির আহমেদ ও বাদী পক্ষের আইনজীবী আক্তার হামিদ খান উভয়েই নিশ্চিত করেছেন।

ফলে ধর্ষণ মামলায় জামিন পেলেও হত্যা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

অনিক কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার নুপূর গ্রামের বাসিন্দা। ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর থেকে ২০২২ সালের ২৫ মার্চ পর্যন্ত তিনি কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর