আপনি পড়ছেন

যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার মধ্যে একাধিক চ্যানেলে যোগাযোগ চলছে। পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের ঝুঁকি এড়ানোর জন্য দুই দেশের গোয়েন্দা সংস্থার মধ্যে যোগাযোগের একাধিক পথ খোলা রয়েছে। রাশিয়ায় মার্কিন বন্দীদের মুক্তির বিষয়ে বিশেষ চ্যানেলে যোগাযোগ চলমান রয়েছে। নতুন একটি কৌশলগত অস্ত্র হ্রাস চুক্তির (স্টার্ট) আওতায় পরিদর্শন চালুর বিষয়েও দুই দেশের আলোচনা শুরু হচ্ছে। মস্কোতে মার্কিন দূতাবাসের চার্জ দো অ্যাফেয়ার্স এলিজাবেথ রুড রুশ বার্তা সংস্থা আরআইএ-নভোস্তিকে এ কথা জানিয়েছেন।

us moscow elizabeth roodমস্কোতে মার্কিন দূতাবাসের চার্জ দো অ্যাফেয়ার্স এলিজাবেথ রুড

এলিজাবেথ রুড বলেছেন, নতুন স্টার্ট চুক্তির আওতায় পরস্পরের পারমাণবিক ও কৌশলগত স্থাপনা পরিদর্শনের প্রক্রিয়া চালুর বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার কর্মকর্তারা আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে আলোচনা শুরু করবেন। মিশরে অনুষ্ঠেয় এ আলোচনা ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে। তিনি বলেন, বিদ্যমান পরিস্থিতিতে পারমাণবিক ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় গোয়েন্দা সংস্থা পর্যায়ে দুই দেশের যোগাযোগের একাধিক পথ খোলা রয়েছে। যদিও এ মূহূর্তে দুই পক্ষের গোয়েন্দাদের মধ্যে কোনো বৈঠকের পরিকল্পনা নেই।

চলতি মাসে রুশ গোয়েন্দা সংস্থা এসভিআরের প্রধান সের্গেই নারিয়াশকিনের সঙ্গে বৈঠক করেন সিআইএ পরিচালক উইলিয়াম বার্নস। এ সময় বার্নস রাশিয়ার পারমাণবিক অস্ত্রের সম্ভাব্য ব্যবহারের পরিণতি সম্পর্কে সতর্ক করেন বলে মার্কিন কর্মকর্তারা জানান। অন্যদিকে রাশিয়া বলেছে, স্পর্শকাতর ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে যা বলা সম্ভব নয়।

এ বিষয়ে মস্কোতে মার্কিন দূতাবাসের ভারপ্রাপ্ত কূটনীতিক রুড বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে পারমাণবিক ও অন্যান্য ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন চ্যানেল রয়েছে। সিআইএ ডিরেক্টর বার্নস এজন্যই তার রুশ সমকক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। এর বাইরে অন্য কিছু তিনি আলোচনা করেননি। ইউক্রেন সংঘাত নিরসনের বিষয়েও তাদের কোনো আলোচনা হয়নি। প্রয়োজন দেখা দিলে আবারও এমন বৈঠক হতে পারে।

তিনি আরও বলেন, বাস্কেটবল তারকা ব্রিটনি গ্রাইনার ও সাবেক মেরিন সদস্য পল হুইলানের মুক্তির বিষয়ে রাশিয়ার সঙ্গে বিশেষ চ্যানেলে যোগাযোগ হচ্ছে। এসব আলোচনা অব্যাহত থাকবে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর