আপনি পড়ছেন

মিয়ানমারের সামরিক জান্তা বিক্ষোভ দমাতে মৃত্যুদণ্ডের হার বাড়িয়ে দিয়েছে। বিরোধীপক্ষ দমাতে এই কৌশল গ্রহণ করেছে সামরিক সরকার। গত সপ্তাহেও তারা সাতজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, বিরোধী দলকে দমন করতে সরকার মৃত্যুদণ্ডকে কৌশল হিসেবে ব্যবহার করছে, যা নিষ্ঠুরতা ছাড়া কিছুই নয়। এএফপির খবর।

myanmar protest 2মিয়ানমারে সাত বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রকে ফাঁসি

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে সামরিক অভ্যুত্থানে অং সান সুচির বেসামরিক সরকারের পতন ঘটে। এর পর থেকে মিয়ানমার বিশৃঙ্খলার মধ্যে রয়েছে। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটিতে স্বল্প সময়ের জন্য গণতন্ত্র চালু হলেও তা আবার রহিত হয়ে গেছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিনার ভলকার তুর্ক এক বিবৃতিতে বলেন, গত বুধবার গোপনে সাতজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে সামরিক আদালতে ফাঁসি দেওয়া দিয়েছে। বর্তমানে মিয়ানমারে যা হচ্ছে, এই সংকট সামরিক সরকার সৃষ্টি করেছে। বিরোধিমত দমন করার জন্য রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে মৃত্যুদণ্ড চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

তুর্ক বলেন, সামরিক বাহিনী আসিয়ান দেশগুলোর মতামতকে অগ্রাহ্য করে সহিংসতা চালিয়ে যাচ্ছে। এমনকি আন্তর্জাতিক কোনো আইন তারা মানছে না। জাতিসংঘের মতে, জান্তা সরকার এ পর্যন্ত ১৩৯ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। তবে জান্তার মুখপাত্র এএফপির কাছে এ ব্যাপারে মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইয়াঙ্গুন ভিত্তিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই শিক্ষার্থীদের চলতি বছরের এপ্রিলে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে একটি ব্যাংকের ঘটনায় গোলাগুলিতে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়। ড্যাগন ইউনিভার্সিটির ছাত্র ইউনিয়ন এক বিবৃতিতে জানায়, প্রতিশোধ নিতে সামরিক বাহিনী ছাত্রদের ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করেছে।

গত বৃহস্পতিবার আরও চার যুবককে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে জাতিসংঘের তদন্তে বেরিয়ে এসেছে। তুর্ক বলেন, সেনাবাহিনী সুষ্ঠু বিচারের মৌলিক নীতিমালা লঙ্ঘন করছে। স্বাধীনতা ও নিরপেক্ষতার মানদণ্ড ধুলিস্যাৎ করে গোপন আদালতে বিচার কার্যক্রম চালাচ্ছে। কখনও কখনও নামমাত্র শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। আটকদের পক্ষে কোনো আইনজীবী অংশ নিতে পারেন না।

স্থানীয় পর্যবেক্ষক গোষ্ঠীর মতে, সামরিক জান্তার অভিযানে এ পর্যন্ত ২ হাজার ২৮০ জন বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন এবং ১১ হাজার ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর