আপনি পড়ছেন

২০২২ সালে আফ্রিকার আটটি দেশে পবিত্র কোরআনের অন্তত ১১ হাজার ২১৫টি প্রতিলিপি উপহার দিয়েছে তুরস্ক। দেশটির এনজিও সংস্থা হিউম্যানটেরিয়ান রিলিফ ফাউন্ডেশনের (আইএইচএইচ) উদ্যোগে কোরআন উপহার দেওয়ান এই প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হয়েছে। খবর আনাদোলু।

quran distributionআফ্রিকায় কোরআনের কপি বিতরণ করছে আইএইচএইচ

প্রতিবেদনে বলা হয়, আইএইচএইচ নাইজেরিয়াতে সাড়ে তিন হাজার, মালিতে আড়াই হাজার, বুর্কিনা ফাসোতে দুই হাজার ১৮৪, শাদে এক হাজার, গিনিতে ৬০০, ইথিওপিয়ায় ৫৮৬, বেনিনে ৫০০ এবং সুদানে ৩৪৫টি কোরআনের প্রতিলিপি উপহার দিয়েছে।

এর আগের বছরে আফ্রিকার সাতটি দেশে ২১ হাজার কোরআনে কারিম উপহার দিয়েছিল তুর্কি সংস্থাটি। ২০২১ সালে গিনি-মালি (১৩ হাজার ৫০০), শাদ (দুই হাজার ৯০০), ঘানা (দুই হাজার), নাইজার ও সুদান (দুই হাজার) এবং সিয়েরা লিওনে (৬০০ কপি) কোরআনের কপিগুলো বিতরণ করা হয়েছিল।

quran distribution 2কোরআনের কপি বিতরণ করছে আইএইচএইচ

আইএইচএইচের দেওয়া তথ্যমতে, আফ্রিকাসহ পুরো বিশ্বে তারা এ পর্যন্ত অন্তত দুই লাখ ৭৪ হাজার মানুষকে কোরআনের কপি উপহার দিয়েছে। বিভিন্ন সময় ও উপলক্ষ্যে এ ধরনের কোরআনের প্রতিলিপি বিতরণ চালিয়ে আসছে মানবাধিকার সংস্থা ‘আইএইচএইচ’।

কোরআনের কপি বিতরণের বাইরেও ইস্তাম্বুলভিত্তিক সংস্থাটি বিশ্বের ১২০টির বেশি দেশে তাদের সেবামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে। ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠিত সংস্থাটি তাদের জন্মলগ্ন থেকেই চেচনিয়া, ফিলিস্তিন, কসোভো ও সিরিয়ার মতো যুদ্ধ, ভূমিকম্প, ক্ষুধা ও সংঘাত বিরাজমান অঞ্চলগুলোতে মানবিক ত্রাণ দিয়ে আসছে।

আইএইচএইচ খাদ্য সহায়তা প্রদান, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও টেকসই উন্নয়ন প্রকল্প যেমন- এতিমখানা, স্কুল, হাসপাতাল, মসজিদ, সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ও কূপ খনন করে আসছে। এর বাইরেও মাঝেমধ্যেই বিভিন্ন দেশের বিবদমান গোষ্ঠীর মধ্যে সমঝোতার ক্ষেত্রে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাজ করে সংস্থাটির সদস্যরা।

সংস্থাটি ২০০৪ সালে জাতিসংঘের ইকনোমিক অ্যান্ড সোশ্যাল কাউন্সিলের সঙ্গে বিশেষ পরামর্শ সেবা প্রদানকারীর মর্যাদা লাভ করে। তাছাড়া ওআইসির পরামর্শ সভা সদস্য হিসেবেও কাজ করে আইএইচএইচ।