আপনি পড়ছেন

গত ২২ ফেব্রুয়ারি ভার্চুয়াল এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ঈদুল ফিতরের পর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ক্লাস শুরু করার ঘোষণা দেন। সেই ঘোষণার প্রেক্ষিতে পরদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ৭ কলেজের চলমান এবং ঘোষিত সব পরীক্ষা স্থগিত করে কর্তৃপক্ষ। এমন সিদ্ধান্তের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আজ সকাল থেকে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনের মুখে অবশেষে সিদ্ধান্ত বদলালো সরকার।

dipu moni education ministerশিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি

পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে আজ বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন নীলক্ষেত অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় কয়েকজন শিক্ষার্থীর গায়ে কাফনের কাপড় দেখা যায়। তাতে লাল কালিতে লেখা ‘পরীক্ষা নাও, না হয় জীবন নাও’। শিক্ষার্থীরা বলছেন, এক দফা-এক দাবিতে রাজপথে নেমেছেন তারা।

এ অবস্থায় শিক্ষার্থীদের দাবি পর্যালোচনা করতে আজ দুপুরে জরুরি বৈঠক ডাকা হয়।

ভার্চুয়াল ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) ও সাত কলেজের প্রধান সমন্বয়ক অধ্যাপক মাকসুদ কামাল এবং সাত কলেজের অধ্যক্ষরা।

dhaka university 1

বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, ৭ কলেজের চলমান পরীক্ষা আগের রুটির মোতাবেক শেষ করা হবে। এছাড়া তারিখ ঘোষণা করা অন্যান্য পরীক্ষাগুলোও সম্পন্ন করা হবে যথাসময়েই। তবে গতকাল (২৩ ফেব্রুয়ারি) ও আজ যে পরীক্ষাগুলো ছিল, সেগুলোর তারিখ পরবর্তীতে জানিয়ে দেওয়া হবে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর