advertisement
আপনি দেখছেন

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মিরের বিশেষ সুবিধা ৩৭০ ধারা বাতিলের পর থেকে উপত্যকাটিতে বন্ধ করে দেয়া হয় ইন্টারনেট সুবিধা। আর এর ফলেই সেখানকার হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টগুলো ধীরে ধীরে মুছে দিতে শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ। তবে এ বিষয়ে বেশিরভাগ কাশ্মিরিই কিছুই জানেনে না।

kashmir whatsapp

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের মালিকানাধীন হোয়াটসঅ্যাপের নীতিমালা অনুযায়ী, কোন অ্যাকাউন্ট যদি ১২০ দিন পর্যন্ত টানা নিষ্ক্রিয় থাকে, তাহলে নিরাপত্তার স্বার্থে সেটি বন্ধ করে দেয়া হয়।

এদিকে স্বায়ত্বশাসন হারানোর পর গত চার মাস ধরে ইন্টারনেট সেবার বাইরে রয়েছে জম্মু-কাশ্মির। আর এ অজুহাতেই সেখানকার বাসিন্দাদের অ্যাকাউন্টগুলো পুরোদমে মুছে দেয়ার তৎপরতা চালাচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ। সেখানকার বেশিরভাগ ব্যবহারকারী এ বিষয়ে না জানলেও কিছু কিছু ব্যক্তির কাছে এটি ধরা পড়ে। তবে তারাও এমনটা হওয়ার কারণ জানেন না।

এ বিষয়ে ফেসবুকের একজন মুখপাত্র বাজফিস নিউজকে বলেন, হোয়াটসঅ্যাপে ডাটা ব্যবহারের মাত্রা ও নিরাপত্তা বজায় রাখার স্বার্থে নিষ্ক্রিয় অ্যাকাউন্টগুলো মুছে দেয়া হয়।

উল্লেখ্য গত ৫ আগস্ট ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মিরের বিশেষ সুবিধা ৩৭০ ধারা সংবিধান থেকে বাতিল করে বিজেপি সরকার। পাশাপাশি জম্মু-কাশ্মির ও লাদাখকে আলাদা আলাদা দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবেও ঘোষণা করা হয়। সেখানকার বাসিন্দারা যেনো এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ না করতে পারে তাই অঞ্চলটিতে আগের দিনই ইতিহাসের কঠোরতম নিরাপত্তা পরিস্থিতি জারি করে মোদি সরকার। বন্ধ করে দেয়া হয় সেখানকার ল্যান্ডফোন, মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিসেবা। এ ঘোষণার আগে ও পরে আটক করা হয় রাজনৈতিক নেতাসহ বহু কাশ্মিরিকে।