advertisement
আপনি দেখছেন

পাকিস্তানের একটি হাসপাতালে হামলা চালিয়েছে দেশটির আইনজীবীরা। বুধবার লাহোরের পাঞ্জাব ইনস্টিটিউট অব কার্ডিওলজি (পিআইসি) হাসপাতালে ঘটা এই ঘটনায় তিনজন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। খবর দ্য ডন।

clash in lahore hospitalপিআইসি হাসপাতালের সামনে পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুরের পর আগুন ধরিয়ে দেয় ক্ষুব্ধ আইনজীবীরা

জানা যায়, কয়েক সপ্তাহ আগে আইনজীবীদের কটাক্ষ করে পিআইসি চিকিৎসকদের একটি ভিডিও ভাইরাল হয় ইন্টারনেট দুনিয়ায়। যাতে দেখা যায়, একজন চিকিৎসক আইনজীবীদের নিয়ে উপহাস করছেন।

এর প্রেক্ষিতেই বুধবার হাসপাতালটিতে হমালা চলায় ক্ষুব্ধ আইনজীবীরা। দুইশ জনেরও বেশি আইনজীবীর হামলায় মুহূর্তেই রণক্ষেত্রে পরিণত হয় হাসপাতাল প্রাঙ্গণ। এ সময় তারা হাসপাতালের সামনে থাকা একটি পুলিশের গাড়িসহ বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করে আগুন লাগিয়ে দেয়। এমনকি পুলিশের সঙ্গেও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন আইনজীবীরা।

সংঘর্ষের এক পর্যায়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে হামলাকারীদের ওপর টিয়ার শেল ও গুলি চালায়। এতে বেশ কয়েকজন আইনজীবী আহত হন।

পাঞ্জাব প্রদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইয়াসমিন রশিদ বলেন, আইনজীবীদের হামলায় হাসপাতালে বেশ কিছুক্ষণ চিকিৎসা সেবা বন্ধ ছিল। এ সময় চিকিৎসার অভাবে এক বৃদ্ধসহ তিনজন রোগী মারা যান।

এ বিষয়ে এক টুইট বার্তায় দেশটির মানবাধিকার বিষয়ক মন্ত্রী শিরিন মাজারি বলেন, হাসপাতাল ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত ৪০ জন আইনজীবীকে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে তাদের মধ্য থেকে চার নারী আইনজীবীকে পরবর্তীতে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অন্যান্যদেরও গ্রেপ্তার করা হবে।

এদিকে হাসপাতালে হামলার ঘটনাটি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত সকলের বিরুদ্ধে আইনআনুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পাঞ্জাব সরকারকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।