advertisement
আপনি দেখছেন

এবার অভিবাসন নিয়ে আরও কড়া অবস্থানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন। তাই অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের আমেরিকার ভিসা প্রদানে বিধি-নিষেধ আরোপের ঘোষণা দিয়েছে ওয়াশিংটন।

trump administration visa

মার্কিন নাগরিকত্ব আইন অনুযায়ী, আমেরিকায় কোনওভাবে সন্তানের জন্ম দিলে সে সন্তান প্রশ্নহীনভাবে মার্কিন নাগরিকত্ব পেয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে তার বাবা-মায়েরও একটি ইমিগ্রেশন অধিকার তৈরি হয়। এই আইনেরই সুবিধা নিচ্ছেন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ। আর এই কারণে রীতিমতো ‘বার্থ ট্যুরিজ়ম’(সন্তানের জন্ম দিতে আমেরিকা গমন) চলে।

আর এভাবে সন্তানের জন্ম দিয়ে আমেরিকার নাগরিকত্ব পাওয়া বন্ধ করার জন্যই ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মার্কিন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এবার থেকে আমেরিকায় যাওয়ার ভিসা পেতে হলে যেকোনও মহিলাকে আগে প্রমাণ করতে হবে যে, তিনি অন্তঃসত্ত্বা নন। প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট মহিলার বক্তব্য খতিয়ে দেখাও হবে। সে বিষয়ে বিস্তারিত নির্দেশও জারি করা হবে।

খবরে বলা হয়েছে, প্রতি বছর চীন, রাশিয়া, ভারত ও বাংলাদেশসহ বেশ কিছু দেশের হাজার হাজার মহিলা আমেরিকায় বেড়াতে গিয়ে সন্তানের জন্ম দিয়ে চলে যান। শুধু নাগরিকত্ব পাওয়াই নয়, আমেরিকায় অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের চিকিৎসাও খুব উন্নত। মার্কিন নাগরিকত্ব আইনের সুযোগ নিয়ে এই ‘বার্থ ট্যুরিজম’-এর সংখ্যা বাড়ছে।

মার্কিন অভিবাসন তথ্য বলছে, এমন নজিরও রয়েছে যে, কোনও কোনও বছর প্রায় ৩৫ হাজার মহিলা কেবল সন্তানের জন্ম দিতে আমেরিকা ঘুরতে গেছেন।

এ ছাড়া উল্লিখিত সিদ্ধান্তের পাশাপাশি নতুন করে আরও কয়েকটি দেশের ওপর আমেরিকায় ভ্রমণের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হচ্ছে। সে সব দেশের তালিকায় রয়েছে- মিয়ানমার, বেলারুশ, ইরিত্রিয়া, কিরগিজস্তান, নাইজেরিয়া ও তাঞ্জানিয়া। আমেরিকার জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে দায়িত্ব গ্রহণের পর পরই ট্রাম্প উত্তর কোরিয়া, ইরান, ইরাক, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদান, সিরিয়া ও ইয়েমেনের নাগরিকদের জন্য মার্কিন ভিসা নিষিদ্ধ করার আদেশ জারি করেন।