advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতে বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে (সিএএ) কেন্দ্র করে দেশটির রাজধানী দিল্লিতে সহিংসতায় নিহত বেড়ে ৩৮ জন হয়েছে। এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস।

delhi violence latest

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারত সফরে যাওয়ার আগের দিন গত রোববার নতুন করে সিএএ-সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে সংঘাতের সূত্রপাত হয়। এর পর বিতর্কিত আইনটির বিরোধিতাকারীদের ওপর নানাভাবে হামলা চালায় ক্ষমতাসীন হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপির সমর্থকরা।

অভিযোগ উঠেছে, বেছে বেছে মুসলিমদের ওপর হামলা চালানো হচ্ছে। তাদের বাড়িঘরে আগুন দিয়ে লুটপাট চালানো হচ্ছে। কয়েক দিনের সহিসংসতায় এ পর্যন্ত ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর দিয়েছে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।

এদিকে, ভারতের এই সহিংস পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে গুতেরেসের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক জানান, জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস নিবিড়ভাবে দিল্লি পরিস্থিতি নজরে রেখেছেন। বিক্ষোভকারীদেরকে শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ করতে দেয়া এবং নিরাপত্তা বাহিনীর সংযত থাকা উচিত- এ বিষয়টির ওপরই জোর দিচ্ছেন তিনি। সেইসঙ্গে যত দ্রুত সম্ভব শান্ত পরিবেশ এবং স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনা জরুরি বলেও মত দিয়েছেন গুতেরেস।

এর আগে, আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা বিষয়ক মার্কিন কমিশন (ইউএসসিআইআরএফ) অভিযোগ করেছে, দিল্লিতে বেছে বেছে মুসলিমদের ওপর হামলা চালানো হচ্ছে। অথচ সব দেখেশুনেও নীরব মোদি সরকার।

অথচ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারত সফরে থাকার সময়ই এ সহিংসতা ছড়িয়ে পড়লেও তিনি মুখ ফুটে কোনো কথা বলেননি। উল্টো ধর্মীয় স্বাধীনতার ব্যাপারে ভারতের প্রশংসা করে গেছেন। কিন্তু তিনি দেশে ফিরতেই দিল্লির বিরুদ্ধে সরব হলো তার দেশের ওই কমিশন।

sheikh mujib 2020