advertisement
আপনি দেখছেন

তুর্কি সীমান্তবর্তী সিরিয়ার ইদলিবে যুদ্ধ বন্ধে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোয়ান এবং রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ওই এলাকায় তুর্কি ও সিরীয় সেনাদের হতাহতকে কেন্দ্র করে উভয় দেশের মধ্যে উত্তেজনার মধ্যেই গতকাল বৃহস্পতিবার মস্কোতে এ চুক্তি সই হয়।

putin erdogan

আলজাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ইদলিব পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য এরদোয়ান রাশিয়া সফরে গেলে তার সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন পুতিন। এই দুই বিশ্ব নেতার মাঝে প্রায় ছয় ঘণ্টার দীর্ঘ একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তাতেই ইদলিবে অস্ত্রবিরতিতে সম্মত হয়ে চুক্তি করেন তারা।

তবে বৈঠক শেষে এরদোয়ান বলেন, চুক্তি অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার রাত ১২টা এক মিনিট থেকে ইদলিবে অস্ত্রবিরতি কার্যকর হবে। তবে সিরীয় বাহিনী হামলা বন্ধ না করলে তুর্কি বাহিনীও চুপ করে বসে থাকবে না। তাদের বিরুদ্ধে পুরো শক্তি প্রয়োগ করা হবে।

চুক্তির বিষয়ে পুতিন বলেন, তুরস্ক-রাশিয়া সব সময় একমত হতে না পারলেও আমরা একটি শাক্তি চুক্তি সম্পাদন করেছি। আশা করছি, এটি ইদলিবের নিরাপদ অঞ্চলে যুদ্ধ বন্ধ করে শান্তি ফিরিয়ে আনবে।

প্রসঙ্গত, গত ডিসেম্বর থেকে বিদ্রোহীদের সর্বশেষ ঘাঁটি ইদলিবে রুশ বাহিনীর সমর্থনে নতুন করে হামলা চালায় সিরিয়ার সরকারি সেনাবাহনী। এতে ১০ লাখের বেশি মানুষ নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য তুর্কি সীমান্তের দিকে ধাবিত হয়। পরিস্থিতি সামলাতে আসাদ বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধে অবতীর্ণ হয় তুর্কি বাহিনী।

গত সপ্তাহে উভয় বাহিনীর হামলা পাল্টা হামলায় ৫০ জনের বেশি তুর্কি সেনা এবং তিনটি যুদ্ধ বিমানসহ ছয় শতাধিক সিরীয় সৈন্য ও মিলিশিয়া নিহত হয়েছে বলে দাবি করা হয়। বিষয়টি নিয়ে তুরস্ক মুখ খুললেও সিরিয়ার পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।