advertisement
আপনি দেখছেন

সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদকে ঘিরে একটি বৃহৎ পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে দেশটির সরকার। তাদের লক্ষ্য শহরটিকে মধ্যরাচ্যের অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে পরিণত করবে। এ জন্য ৮ হাজার কোটি মার্কিন ডলার ধার্য করেছে সৌদি সরকার। উচ্চাভিলাষী এই পরিকল্পনার বিষয়টি জানিয়েছেন রিয়াদ শহর কর্তৃপক্ষ রয়াল কমিশন ফর দ্য সিটি অব রিয়াদের প্রেসিডেন্ট ফাহদ আল-রাশীদ।

saudi capital riyadh01সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ

আরব নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, বর্তমানে রিয়াদ সৌদি আরবের অন্যতম অর্থনৈতিক চালিকা শক্তি। আমরা শহরটিকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে চাই। ভিশন ২০৩০ এর আওতায় আগামী কয়েক বছরে শহরকে দ্বিগুণ করা হবে। এতে বসবাসরত মানুষের সংখ্যাও দ্বিগুণ হবে।

আল-রাশীদ বলেন, ইতোমধ্যে সে লক্ষ্যে ১৮টি মেগা প্রজেক্টের কাজ চলছে। যার নির্মাণ খরচ ধরা হয়েছে আড়াই হাজার কোটি ডলার। প্রকল্পগুলো নির্মাণ হয়ে গেলে অর্থনীতি দ্রুত অগ্রসর হবে। সাথে তৈরি হবে নতুন কর্মসংস্থান। ধারণা করা হচ্ছে, আগামী দশ বছরের মধ্যেই রিয়াদের জনসংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে ১ কোটি ৫০ লক্ষ হবে।

fahd al rasheed president of the royal commission for the city of riyadhরয়াল কমিশন ফর দ্য সিটি অব রিয়াদের প্রেসিডেন্ট ফাহদ আল-রাশীদ।

আরব নিউজ বলছে, মেগা প্রকল্প নির্মাণের পাশাপাশি সৌদি সরকার থেকে বেসরকারি খাতে আড়াই হাজার কোটি ডলার দেয়া হবে। এতে ব্যাংকিং, সংস্কৃতি ও মরু পর্যটন খাতও শক্তিশালী হবে।

রিয়াদ শহর কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্ট বলেন, এই প্রকল্পের আওতায় একটি মেগা ইন্ডাস্ট্রিয়াল জোন বানানো হবে। সেখানে প্রযুক্তি, গাড়ি নির্মাণ, বায়ো-টেকনোলজি শিল্পের ওপর বেশি জোর দেয়া হবে।

তিনি বলেন, পরিবেশের ওপরও আমরা মনোনিবেশ করেছি। আগামী ৫ বছর রিয়াদে ৭০ লাখ গাছ রোপন করা হবে। শহরের মধ্যে কিং সালমান পার্ক নির্মাণ হবে, যা লন্ডনের হাইড পার্ক থেকেও অনেক বড় হবে। এছাড়া শহরে একটি অপেরা হাউজ তৈরি করা হবে, যেখানে বিশ্বের বিভিন্ন স্থান থেকে ১ হাজার শিল্পি ও কলাকুশলী আসবে এবং দর্শকদের মনোরঞ্জন করবে।

sheikh mujib 2020