advertisement
আপনি দেখছেন

বিশ্বশক্তিগুলোর সঙ্গে ২০১৫ সালে ইরানের একটি পারমাণবিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল। কিন্তু ২০১৮ সালে সেটি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে বের করে নিয়ে আসেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এখন বাইডেন প্রশাসন শর্তসাপেক্ষে আবারও সেই চুক্তিতে ফিরে যাওয়ার ইচ্ছে পোষণ করেছেন।

david friedman israel us embassadorইসরায়েলে নিযুক্ত বিদায়ী মার্কিন রাষ্ট্রদূত ডেভিড ফ্রিডম্যান

এদিকে, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের এমন পদক্ষেপ নিয়ে সতর্ক করেছেন ইসরায়েলে নিযুক্ত বিদায়ী মার্কিন রাষ্ট্রদূত ডেভিড ফ্রিডম্যান। তিনি বলেন, যদি বাইডেন প্রশাসন ইরান পারমাণবিক চুক্তিতে ফিরে যায়, তাহলে আরব দেশগুলোর সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্ক স্বাভাবিককরণ চুক্তি ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে।

সম্প্রতি ইসরায়েলি একটি গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ শঙ্কার কথা প্রকাশ করেন বলে আজ সোমবার মিডল ইস্ট মনিটরের খবরে বলা হয়েছে।

ডেভিড ফ্রিডম্যান বলেন, আরব দেশগুলোর সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্ক স্বাভাবিককরণ চুক্তি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের মধ্যস্থতায় সম্পন্ন হয়েছিল।

joe biden 2021মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সব পক্ষই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে যে বিশ্বাস দেখিয়েছিল, তার কারণেই এই চুক্তি সম্ভব হয়েছে। বিশেষত আংশিকভাবে তেহরানের প্রতি প্রশাসনের আগ্রাসী অবস্থানের কারণে, যোগ করেন তিনি।

‘ফলস্বরূপ, ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের পারস্পরিক সম্পর্ক মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রক্রিয়া হিমশীতল বা এর বিপরীতও করতে পারে।’

মার্কিন এই কূটনীতিক বলেন, ইসরায়েলের সঙ্গে আরব দেশগুলোর চুক্তি অত্র অঞ্চলের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যা আগামী ১০০ বছরে মধ্যপ্রাচ্যকে পরিবর্তিত করতে পারে। কিন্তু ওয়াশিংটন যদি তেহরান চুক্তিতে আবারও ফিরে যায়, তাহলে এটি সম্ভব হবে না এবং বিরোধ দেখা দেবে।

sheikh mujib 2020