advertisement
আপনি দেখছেন

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার কঙ্গনা রানাউত নামে ভারতের একজন অভিনেত্রীকে স্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করে দিয়েছে।

twitter permanently banned kangana ranaut

সম্প্রতি তিনি পশ্চিমঙ্গের নির্বাচন-পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে একটি পোস্ট করেন, টুইটারের দাবি সেই পোস্টের মাধ্যমে কঙ্গনা সহিংসতায় উসকানি দিয়েছেন, তা তাদের নীতি বিরোধী। এর আগেও একাধিকবার সহিসংতার উসকানি ও বিদ্বেষমূলক পোস্ট করেছেন রানাউত। ফলে এবার স্থায়ীভাবে তার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হলো।

পশ্চিমবঙ্গের সাম্প্রতিক নির্বাচনে জয়ী হয় মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের দল বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে প্রভাব বিস্তারের জন্য খুব চেষ্টা করলেও শেষ পর্যন্ত সফল হতে পারেনি। ৮০টিরও কম আসন পায় তারা। পক্ষান্তরে তৃণমূল ২০০-এর বেশি আসন পেয়ে জয়লাভ করে।

তৃণমূলের জয়ের পরই পশ্চিমবঙ্গকে নতুন কাশ্মির বলে অভিহিত করেন এই অভিনেত্রী। এর আগেও একাধিকবার তিনি পশ্চিমবঙ্গের মানুষকে হেয় করে টুইটারে নানা কথার্বাতা লিখেছেন।

twitter covers up trumps tweet

টুইটার এক বিবৃতিতে বলেছে, “যদি টুইটারে কারো আচরণ এমন হয় যা অফলাইনে সহিংসতা ছড়াতে পারে, তাহলে সেই ব্যবহারকারির বিরুদ্ধে টুইটার কড়া ব্যবস্থা নেয়। সেই হিসেবেই অ্যাকাউন্টটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। টুইটার তাদের সার্ভিস ব্যবহার করা প্রত্যেকের সাথে সমানভাবে আচরণ করে।”

একটি সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথা বলার সময় কঙ্গনা বলেন, “টুইটার প্রমাণ করেছে যে তারা জন্মসূত্রে আমেরিকান এবং তারা মনে করে শ্বেতাঙ্গরা আমাদের উপর খবরদারি করতে পারে। তারা আমাদের বলতে চায় আমরা কী করবো, আমরা কী ভাববো। আমার অনেক প্লাটফর্ম আছে যেখানে আমি আমার কথা বলতে পারবো।”