advertisement
আপনি দেখছেন

পবিত্র রমজান মাসে এমনকি হাজার মাসের চেয়ে উত্তম লাইলাতুল কদরের রাতে মুসলমানদের তৃতীয় পবিত্র স্থান জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদে মুসল্লিদের ওপর দখলদার ইসরায়েলি বাহিনীর র্ববর হামলা এবং বর্তমানে গাজায় নিরাপরাধ ফিলিস্তিনিদের ওপর নৃশংস হামলার প্রতিবাদে ‘সোচ্চার ভূমিকা’ রাখছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এবং দেশটির প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি।

pak pm and president

এই ইস্যুতে ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। অন্যদিকে, একই ইস্যুতে মাহমুদ আব্বাসকে চিঠি লিখেছেন পাকিস্তানি প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। তারা দুই জনই ফিলিস্তিনিদের প্রতি পাকিস্তানের সমর্থনের কথা পুনর্ব্যক্ত করেছেন এবং সাম্প্রতিক ইস্যুতে ইসরায়েলের কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক মহলে কাজ করার কথা বলেছেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এক বিবৃতির বরাত দিয়ে দেশটির গণমাধ্যম দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে ফোনালাপ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এ সময় তিনি ফিলিস্তিনিদের প্রতি পাকিস্তানের সমর্থনের কথা জানান। একই সঙ্গে ইসরায়েলের মানবাধিকার ও আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক তৎপরতা বাড়ানোর নিমিত্তে পাকিস্তানের অব্যাহত প্রচেষ্টার বিষয়ে মাহমুদ আব্বাসকে আশ্বস্ত করেন।

mahmud abbas palaestine president

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী টেলিফোনে আলাপকালে পবিত্র রমজান মাসে আল-আকসা মসজিদে ইসরায়েলি বাহিনীর তাণ্ডব এবং গাজা উপত্যকায় চলমান হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানান। বর্তমান পরিস্থিতিতে দুই নেতা ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন বলেও ওই বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে, পাকিস্তানি প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলের আক্রমণ এবং অবৈধ কর্মকাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন উল্লিখিত চিঠিতে। তিনিও আন্তর্জাতিক মহলকে ফিলিস্তিনিদের পক্ষে সোচ্চার করতে পাকিস্তানি প্রচেষ্টার কথা জানিয়েছেন।

saudi arabaia support palestine says king salman to pakistan pm imran khan

আরিফ আলভি বৃহস্পতিবার ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্টের কাছে ওই চিঠি পাঠান। এতে তিনি ইসরায়েলের কর্মকাণ্ড মানবতা, মানবাধিকার ও আন্তর্জাতিক আইনের পরিপন্থী বলে উল্লেখ করেন।

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের উদ্দেশে পাকিস্তানি প্রেসিডেন্ট প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ফিলিস্তিনের স্বার্থে সংহত করতে এবং ফিলিস্তিনি জনগণের পক্ষে আওয়াজ তুলতে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।