advertisement
আপনি দেখছেন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট বা ডেল্টা ধরন নিয়ে চাঞ্চল্যকর প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। জাতিসংঘের এ সংস্থাটি বলছে, ইতোমধ্যে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট বিশ্বের ১২৪টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। ভ্যারিয়েন্টটিতে আক্রান্ত হয়ে অন্তত দুই কোটি মানুষের প্রাণহানির শঙ্কা প্রকাশ করেছে সংস্থাটি।

delta variant india cvভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার চাঞ্চল্যকর প্রতিবেদন!

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২০২০ সালের অক্টোবরে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে প্রথম শনাক্ত হয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। এর পর থেকে তা বিশ্বের ১২৪টি দেশে শনাক্ত হয়েছে। করোনাভাইরাসের এই প্রাণঘাতী ধরনটি বিশ্বব্যাপী দুই কোটি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে।

ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, রিপোর্টটি প্রকাশের পর থেকেই চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। ভারতীয় বিজ্ঞানী ও চিকিৎসকরা ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টকে কোভিড-১৯ এর সাধারণ ভ্যারিয়েন্ট বা ধরন হিসেবেই বিবেচনা করছেন। আবার বিশ্বের কিছু বিজ্ঞানীও ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টকে ততটা বিপজ্জনক হিসেবে চিহ্নিত করছেন না।

delta variant india cv innerভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে অনেক জায়গায় বিপর্যয় চলছে, ফাইল ছবি

এ অবস্থায় প্রশ্ন দেখা দিয়েছে- তাহলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কেন ভারতীয় এই ভ্যারিয়েন্টকে এতটা বিপজ্জনক হিসেবে উপস্থাপন করছে। তবে প্রশ্ন উঠলেও ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট যেমন ভারতকে বিপর্যস্ত করেছে, তেমনি বিশ্বের যেখানে এটি শনাক্ত হয়েছে সেখানেই এটি ভালোই তাণ্ডব চালাচ্ছে।