advertisement
আপনি পড়ছেন

ভূমধ্যসাগরের ন্যাটো মিশনে সেনা পাঠানোর অনুমোদন দিয়েছে জার্মান সংসদ। ভূমধ্যসাগর দিয়ে মানব পাচার রোধ এবং কথিত সন্ত্রাসীগোষ্ঠী দায়েশের অস্ত্র পাচার বন্ধ করতে ন্যাটো মিশনে জার্মানির সাড়ে ছয়শত সেনা পাঠানো হবে।

german army

জানা যায়, জার্মান সেনারা সেখানে ২০১৭ সাল পর্যন্ত অবস্থান করবে। তবে পরিস্থিতি বেগতিক হলে সেনা সংখ্যা আরো বাড়াতে পারবে। কূটনৈতিকরা বলছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং ন্যাটোতে জার্মান সামরিক তৎপরতা জোরদার করতেই ভূমধ্যসাগর ন্যাটো মিশনে সেনা পাঠাচ্ছে জার্মান সরকার।

এদিকে লিবিয়া উপকূলেও ইউরোপীয় ইউনিয়নের অভিযানে জার্মানির একাধিক যুদ্ধজাহাজ অংশ নিচ্ছে। অপারেশন সোফিয়া নামের এই অভিযানের মাধ্যমে অস্ত্র ও মানব পাচার বন্ধের চেষ্টা চলছে।

এদিকে জার্মানিতে অন্তত ৫০০ দায়েশ সন্ত্রাসী ঢুকে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জার্মান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থমাস ডি মাইজিয়েরে। বিল্ড পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মাইজিয়েরে বলেছেন, 'জার্মানিতে বর্তমানে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএসআইএল বা দায়েশের অন্তত ৫২০ সন্ত্রাসী অবস্থান করছে। তারা এককভাবে বা সংগঠিত সন্ত্রাসী হামলা চালাতে পারে।'

আপনি আরো পড়তে পারেন

পুতিনকে সাদ্দাম হোসেনের সঙ্গে তুলনা করলেন ওবামা

হিলারিকে বিষ দিয়েছেন ট্রাম্প বা পুতিন!

যুক্তরাষ্ট্রের বার্মিংহামে শান্তি সমাবেশে গোলাগুলি নিহত ১ আহত ৫

ঈদের দিনেও কাশ্মিরে সংঘর্ষ, দুজনের মৃত্যু

উত্তর কোরিয়ার রাজধানী ধ্বংস করে দেয়ার হুমকি