advertisement
আপনি পড়ছেন

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় ১৭ ভারতীয় জওয়ান নিহত হওয়ার ঘটনায় ক্রমশ উত্তেজনা বাড়ছে ভারত ও পাকিস্তান সীমান্তে। ভারতীয় সেনাবাহিনীর একটা অংশ পাক ভূখণ্ডে গিয়ে আক্রমণ চালানোর কথাও ভাবছে। তবে ভারতের যেকোন আগ্রাসন রুখে দিতে পাকিস্তান প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন দেশটির সেনাপ্রধান জেনারেল রাহিল শরীফ।

pakistan army metting

জানা যায়, সীমান্তে উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়ায় সেনাবাহিনীর কমান্ডারদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন দেশটির সেনাপ্রধান জেনারেল রাহিল শরীফ। জেনারেল হেডকোয়াটার্সে ওই বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। পরে পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পাকিস্তানের ব্যাপক প্রস্তুতির কথা জানায়।

পাকিস্তানি সেনাপ্রধান বলেন, 'পাকিস্তান একটি দৃঢ়প্রত্যয়ী জাতি। সেনাবাহিনী দেশ-বিদেশের প্রত্যেকটা হুমকি কাটিয়ে উঠেছে। ভারতের যেকোন ধরনের আক্রমণের জন্য প্রস্তুত পাকিস্তান। দেশের সার্বভৌমত্ব ও ঐক্যের বিরুদ্ধে যেকোনো ধরনের অশুভ পদক্ষেপ রুখে দিতে সেনাবাহিনী বদ্ধ পরিকর।'

কাশ্মিরে সেনা ঘাঁটিতে হামলাকারীরা পাকিস্তানে প্রশিক্ষিত বলে দাবি করে ভারত। পাকিস্তান এই অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছে। পাক কর্মকর্তারা বলছেন, ভারতে হামলা হলেই পাকিস্তানকে বারবার দোষারোপ করা হয়। মিথ্যা অজুহাতে আমাদের ওপর আক্রমণ হলে তাদের বিরুদ্ধে 'সব অস্ত্র ভাণ্ডার' ব্যবহার করা হবে।

উল্লেখ্য, গতকাল রোববার ভোরে পাকিস্তানের সীমান্তবর্তী বারামুল্লা জেলার শ্রীনগর-মুজাফফরাবাদ হাইওয়ের উরিতে ভারতীয় একটি ব্রিগেড সদর দফতরে সন্ত্রাসী হামলায় ১৭ ভারতীয় সেনা নিহত হয়। আক্রমণকারী চার অস্ত্রধারীও নিহত হয়। ভারত বলছে, অস্ত্রধারীরা পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মুহাম্মদির সদস্য।

আপনি আরো পড়তে পারেন

পাকিস্তান ভূখণ্ডে আক্রমণ করতে চায় ভারতীয় সেনাবাহিনী

আইএসের অবস্থানে সিরিয়া-রাশিয়ার যৌথ হামলা

রিজার্ভ চুরি: দেড় কোটি ডলার ফেরত দিচ্ছে ফিলিপাইন

মোদী: হামলায় জড়িতদের কেউ রেহাই পাবে না

কাশ্মীরে ভারতীয় সামরিক ঘাঁটিতে হামলায় ১৭ সেনা নিহত