advertisement
আপনি পড়ছেন

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন নির্বাচনে পরাজয় স্বীকার করে বিরোধী লেবার পার্টি নেতা অ্যান্থনি আলবানিজকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী পদে প্রায় এক দশক ক্ষমতায় থাকা মরিসন বলেছেন, আজকের দিনটি তার লিবারেল পার্টির জন্য ‘কঠিন’ দিন।

anthony albanese twsdঅস্ট্রেলিয়ার ৩১-তম প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন অ্যান্থনি আলবানিজ

অ্যান্থনি আলবানিজের নেতৃত্বাধীন লেবার পার্টি একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজনীয় ৭৬ আসন করায়ত্ব করেছে। মূলতঃ পরিবেশ সংক্রান্ত ইস্যুগুলোতে কঠোর আইন প্রণয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েই ভোটারদের মন জয় করেছে দলটি।

নির্বাচনের ফলাফল পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, শহরাঞ্চলে রক্ষণশীল ও লিবারেল পার্টির জন্য নিরাপদ আসন হিসেবে বিবেচিত নির্বাচনী এলাকাগুলোতে ক্ষমতাসীন জোটের প্রার্থীদের ভোটাররা প্রত্যাখ্যান করেছে। অন্যদিকে এসব আসনে জয় ছিনিয়ে আনা আলবানিজের সমর্থক বেশিরভাগ নারী প্রার্থী পরিবেশবান্ধব, দুর্নীতিবিরোধী ও জেন্ডার-সমতার এজেন্ডা সামনে রেখে নির্বাচনে লড়েছেন।

অস্ট্রেলিয়ার গ্রিন পার্টি নেতা অ্যাডাম ব্রান্ডট বলেন, ভোটাররা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যে তারা পরিবেশ বিষয়ে সরকারের পদক্ষেপ দেখতে চান। আমরা টনা তিনবছর ধরে খরা, বন্যা ও উপর্যুপরি দাবদাহ দেখে আসছি। মানুষ বিষয়টি বুঝতে পেরেছে।

অস্ট্রেলিয়ার ৩১তম প্রধানমন্ত্রী হতে চলা অ্যান্থনি আলবানিজ ২০১৯ সালে লেবার পার্টির নেতৃত্বে আসেন। এর আগে তিনি লেবার নেতা কেভিন রাড ও জুলিয়া গিলার্ডের মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন।

নির্বাচনে বিজয় নিশ্চিত হবার সমর্থকদের উদ্দেশ্যে দেওয়া বক্তৃতায় আলবানিজ বলেছেন, আমি সব অস্ট্রেলিয়ানকে একসঙ্গে করতে প্রতিদিন কাজ করব। আমি অস্ট্রেলিয়ার মানুষের জন্য উপযোগী একটি সরকারের নেতৃত্ব দিব।

তিনি বলেন, আমি সব অস্ট্রেলিয়ানকে এ মর্মে নিশ্চিত করতে চাই যে, আজ আপনি যাকেই ভোট দিয়েছেন, সেটা বিবেচ্য নয়। আমি যে সরকারের নেতৃত্ব দিব, সে সরকার আপনাদের প্রত্যেককে প্রতিদিন শ্রদ্ধা করবে।