advertisement
আপনি দেখছেন

বর্তমান সরকারের এক বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় জীবনে নতুন প্রাণশক্তি সঞ্চার করবে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গণভবনে জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে তিনি এ কথা বলেন।

pm hasina bd new1

প্রধানমন্ত্রী বর্তমান সরকার গঠন করার পর প্রথমবারের মতো জাতির উদ্দেশে টেলিভিশনে সম্প্রচারিত ভাষণ দেন।

ভাষণে তিনি বলেন, জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন ও ২০২১ সালের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানমালা একইসাথে চলতে থাকবে। এ উদযাপন দেশের মানুষকে নতুন মন্ত্রে দীক্ষিত করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ বাস্তবায়ন করতে আরো একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে।

নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চতুর্থবার শপথ নেয়ার এক বছরপূর্তি উপলক্ষ্যে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। এই শুভক্ষণে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। স্মরণ করছি জাতীয় চার নেতাসহ মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহিদ এবং দুই লাখ নির্যাতিত মা-বোনকে।’

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়া পরিবারের সদস্যদের এবং ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত হওয়া সবাইকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে তিনি বলেন, ‘২০২০ খ্রিষ্টাব্দ আমাদের জাতীয় জীবনে এক বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বছর। এ বছর উদযাপিত হতে যাচ্ছে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যেই ২০২০-২১ সালকে মুজিববর্ষ হিসেবে ঘোষণা করেছি। আগামী ১৭ই মার্চ বর্ণাঢ্য উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে বছরব্যাপী অনুষ্ঠানমালার শুভ সূচনা হবে।’