advertisement
আপনি দেখছেন

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে রান্নাঘরে জমে থাকা গ্যাসের আগুনে দগ্ধদের মধ্যে নুরজাহান (৬০) নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

fire in narayangonj

এ তথ্য নিশ্চিত করে ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, নুরজাহানের শরীরের ৯০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল।

এর আগে ভোর ৫টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সাহেব পাড়া এলাকার একটি পাঁচতলা ভবনের নিচ তলার বাসায় আগুন লেগে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ হন। তাদের সবাইকে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুরজাহানের মৃত্যু হয়।

বাকি দগ্ধরা হলেন- মো. কিরণ মিয়া (৪৫), মো. হিরন মিয়া (২৫), মো. আবুল হোসেন (২৫), মুক্তা (২০), মো. কাওছার (১৬), আপন (১০) ও লিমা (৩)। তারা সকলেই ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন আছেন।

narayangonj burn dmch

চিকিৎসকের বরাত দিয়ে বাচ্চু মিয়া জানান, দগ্ধদের মধ্যে আরো চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এর মধ্যে কিরণ মিয়ার শরীরের ৭০ শতাংশ, আবুল হোসেনের ৪৫ শতাংশ, হিরণ মিয়ার ২২ শতাংশ, কাউসারের ২৫ শতাংশ, মুক্তার ১৫ শতাংশ, ইলমার ১৪ শতাংশ এবং আপনের ২০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফীন জানান, বাড়িটির নিচতলায় পরিবারটি ভাড়া থাকতো। ধারণা করা হচ্ছে, রাতে রান্নার চুলা বন্ধ না করে তারা ঘুমিয়ে পড়েন। ফলে চুলা থেকে গ্যাস বের হয়ে ঘরের ভেতরে জমে থাকে। ভোরে রান্না করতে গিয়ে গ্যাসের চুলায় আগুন ধরাতে গেলে জমে থাকা গ্যাসে আগুন ধরে যায়।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ফারুক জানান, পুলিশ ও স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।