advertisement
আপনি দেখছেন

নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণে দিশেহারা গোটা বিশ্ব। এরই মধ্যে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ কোটির বেশি মানুষ। প্রাণ হারিয়েছেন ১২ লাখের বেশি। বিশ্বজুড়ে এ ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্তে এখন পর্যন্ত একমাত্র প্রচলিত ও সবচেয়ে কার্যকর উপায় হলো সোয়াব টেস্ট। তবে মার্কিন বিজ্ঞানীদের একটি দল কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার এমন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে, যা সম্ভাব্য আক্রান্তের কাশির শব্দ শুনেই বলে দিবে ওই ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত কি না।

cough imageকাশি- প্রতীকী ছবি

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলের প্রতিবেদনে বলা হয়, জর্ডি লুগার্তা, ব্রায়ান সুব্রিয়ানা ও ফেরান হুয়েটো নামের যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজির (এমআইটি) তিন জন গবেষক কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার এ প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছেন। এ জন্য তারা গত এপ্রিল ও মে মাসে মোট ৫ হাজার ৩২০ জনের গলার আওয়াজ রেকর্ড করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গবেষকরা মানুষের কাশির শব্দ ও কথা বলার ধরন থেকে করোনাভাইরাস শনাক্তের চেষ্টা করছেন। গবেষকরা এখন পর্যন্ত তাদের গবেষণার প্রাপ্ত ফলাফল ওপেন জার্নাল অফ ইঞ্জিনিয়ারিং ইন মেডিসিন অ্যান্ড বায়োলজিতে (আইইইই) প্রকাশও করেছেন।

coronaকরোনাভাইরাস- প্রতীকী ছবি

যেখানে তারা দাবি করেছেন, সোয়াব টেস্টের সঙ্গে তুলনা করলে তাদের গবেষণা ৯৪ দশমিক ২ শতাংশ আক্রান্তের ক্ষেত্রে সঠিক ফলাফল দিয়েছে। যেসব মানুষের শরীরে করোনার কোনো উপসর্গ নেই, তাদের ক্ষেত্রে সফলতার হার ৮৩ দশমিক ২ শতাংশ।

তবে শতভাগ নির্ভুল ফলাফল পেতে এই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে আরো গবেষণা করতে হবে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। তারা বলছেন, তাদের এই গবেষণা যদি সফল হয়, তাহলে সম্ভাব্য আক্রান্তের কাশির শব্দ শুনেই বলে দেওয়া যাবে ওই ব্যক্তি সংক্রমিত কি না। শিগগিরই তারা এমন একটি অ্যাপ আনতে পারেন।

গবেষকরা এও বলেছেন, তাদের এই অ্যাপের কারণে সোয়াব টেস্ট পুরোপুরি অপ্রয়োজনীয় হবে না। বরং সোয়াব টেস্টের সহায়ক হিসেবেই কাজ করবে তাদের এই অ্যাপ।

sheikh mujib 2020