advertisement
আপনি দেখছেন

হার্টে কোনো বড় ধরনের ইনজুরি হলে হার্ট প্রতিস্থাপন করা ছাড়া উপায় থাকে না। কিন্তু সুইজারল্যান্ডের গবেষকরা এমন একটি উপায় বের করার দাবি করেছেন, যার মাধ্যমে হার্টের চাপ কমানো যাবে এবং এতে করে হার্ট নিজেই সুস্থ হয়ে উঠতে পারবে।

scientist creates artificial aorta

হার্ট যখন আঘাতপ্রাপ্ত হয়, তখন নিজের অবস্থা অপরিবর্তিত রাখতে এটি ক্ষতিগ্রস্ত টিস্যুর সম্মিলনে জটিল আকার ধারণ করে। কিন্তু সমস্যা হলো এতে করে হার্ট আর আগের মতো স্পন্দিত হতে পারে না এবং এরই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় হার্টের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায়।

এ অবস্থায় ক্ষতিগ্রস্ত হার্টের সহায়তার লক্ষ্যে, গবেষকরা এমন একটি কৃত্রিম ধমনী তৈরি করেছেন যা রক্ত প্রবাহে সহায়তা করতে সক্ষম এবং এতে হার্টের উপর চাপ কমানো সম্ভব।

ধমনীয় হলো একটি রক্তবাহী শিরা যা হার্ট থেকে বের হওয়া রক্ত শরীরের অন্যান্য অংশে সরবারহ করে। মানুষের জীবন-প্রক্রিয়ায় এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এর মাধ্যমে হার্টে রক্ত প্রবেশ করে এবং বের হয়ে শরীরের প্রয়োজনীয় অংশে যায়। কৃত্রিম ধমনীর মাধ্যমে গবষকরা এমন পুরো কাজটি করার সক্ষমতা অর্জনরে দাবি করেছেন এবং এর মাধ্যমে হার্টের উপর চাপ কমানো সম্ভব।

ইয়োয়ান সিভেট, গবেষণাটির প্রধান লেখক এ বিষয়ে বলেন, “আমাদের এই গবেষণার প্রধান সুবিধা হলো এতো রোগীর হার্টের উপর চাপ কমে। এই গবেষণার মূল ধারণা হল হার্টকে সহায়তা করা, প্রতিস্থাপন করা নয়।”

প্রক্রিয়াটি বাস্তবায়নে যে ডিভাইস তৈরি করা হয়েছে তাতে ব্যবহৃত হয়েছে সিলিকনের টিউব। বৈদ্যুতিক চাপ প্রয়োগ করার মাধ্যমে এই টিউবটি সাধারণ শিরার চেয়ে বেশি প্রসারিত হতে পারবে এবং শিরার চেয়ে বেশি রক্তধারণ করতে পারবে। এবং এই পর্যায়ে ডিভাইসটি আবার বন্ধ হয়ে যাবে এবং পুনরায় রক্তধারণ করবে।

মানুষের রক্তপ্রবাহের একটি বিকল্প মডেল তৈরি করে সেখান এই ডিভাইসটি পরীক্ষা করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ডিভাইসটি মানুষের হার্টের রক্তের চাপ ৫.৫ পর্যন্ত কমিয়ে ফেলতে সক্ষম হয়েছে। এটি এখন পর্যন্ত পরিমাণে খুব বেশি নয়; তবে পদ্ধতিটি যে কাজ করছে তা প্রমাণিত হয়েছে।

এই পদ্ধতির আরো উন্নতি সাধন করা সম্ভব হলে হার্ট প্রতিস্থাপন করার বদলে তা সারিয়ে তোলা সম্ভব হবে বলে ধারণা করছে গবেষকরা।

sheikh mujib 2020