advertisement
আপনি পড়ছেন

বিশ্বের সবচেয়ে পুষ্টিকর গাছ বাংলাদেশের আনাচেকানাচে জন্মায়, যার নাম শজনে। এর ডাঁটায় বহু গুণ রয়েছে, এর মধ্যে মূল্যবান খনিজ উপাদান, স্বাস্থ্যকর প্রোটিন ও প্রয়োজনীয় পুষ্টিগুণ অন্যতম। বটতলার কবিরাজ নয়, বিশেষজ্ঞরাই এ কথা বলছেন।

shajana treeশজনে গাছ

শজনে ডাঁটায় যেসব ওষুধি গুণ রয়েছে, তার মধ্যে রয়েছে- ১. হাড় শক্ত করা। এতে ক্যালসিয়াম, লৌহ ও অন্যান্য ভিটামিন থাকায় হাড়ের গঠনে বেশ সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকে। দুধের সঙ্গে মিশিয়ে অথবা জুস করে খাওয়া যেতে পারে, যা শিশুদের হাড় শক্ত করতে কার্যকরী।

২. রক্ত পরিষ্কার করার ক্ষেত্রে শজনের পাতা ও সবুজ ডাঁটা খুবই কাজ করে থাকে। এর রসে জীবাণুরোধী উপাদান থাকায় রক্ত ভালো রাখে। শজনে ডাঁটার ঝোল কিংবা জুস খেলে ত্বকের সমস্যা দূর হয়।

shajan treeশজনে গাছ

৩. রক্তে চিনির পরিমাণ কমানোর ক্ষেত্রে ভালো ভূমিকা রাখে শজনের পাতার রস। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে যা বেশ কাজে দেয়। পিত্তথলির কার্যকারিতা বাড়াতেও কার্যকরী।

৪. প্রদাহনাশী উপাদানের কারণে শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা দূর করে শজনে ডাঁটা ও পাতার রস। কফ, কাশি, গলাব্যথা সমস্যা দূরার জন্য শজনের স্যুপ খাওয়া যেতে পারে। হাঁপানি, ব্রঙ্কাইটিস ও যক্ষ্মা রোগের বিরুদ্ধে প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে শজনে।

. গর্ভবতী নারীর সন্তান জন্মদান এবং জন্মের আগে ও পরের জটিলতা দূর করা ক্ষেত্রে বেশ কার্যকরী শজনে। এতে থাকা প্রয়োজনীয় ভিটামিন ও খনিজ মাতৃদুগ্ধ বাড়াতে সহায়তা করে।

৬. শজনের পাতা ও ফুলে ব্যাকটেরিয়ারোধী উপাদান থাকায় সংক্রমণ প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে। এতে প্রচুর ভিটামিন সি থাকায় গলা ও ত্বকের বিভিন্ন ধরনের সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করে। মানবদেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়িয়ে তোলে শজনে।

. শজনে ডাঁটা ও পাতায় প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন বি কমপ্লেক্স থাকায় হজম-প্রক্রিয়ায় খুব উপকারী। এ ক্ষেত্রে জটিল কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন ও চর্বি সহজেই ভেঙে ফেলে শজনে।

৮. যৌনস্বাস্থ্যের জন্যও উপকারী। কারণ শজনের ভেতরে প্রচুর পরিমাণে জিংক রয়েছে। এটি শুক্রাণু উৎপাদন-প্রক্রিয়ায় কার্যকর বলে উল্লেখ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।