advertisement
আপনি পড়ছেন

যুক্তরাষ্ট্রে আবার ধরা পড়েছে পোলিও রোগী। বৃহস্পতিবার মার্কিন স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানায়, নিউ ইয়র্ক রাজ্যে এক ব্যক্তির দেহে পোলিং ভাইরাস ধরা পড়েছে। প্রায় এক দশক পর এমন রোগী শনাক্ত হলো যুক্তরাষ্ট্রে। খবর এএফপি।

polio 1যুক্তরাষ্ট্রে আবার ধরা পড়েছে পোলিও রোগী

নিউইয়র্ক স্টেট স্বাস্থ্য দপ্তর জানায়, ম্যানহাটন শহরের প্রায় ৩০ মাইল উত্তরে রকল্যান্ড কাউন্টিতে বসবাসরত ওই ব্যক্তি পরীক্ষায় পোলিও পজিটিভ হন। তবে তার বয়স বা পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।

মার্কিন রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের (সিডিসি) তথ্যমতে, সর্বশেষ ২০১৩ সালে একজনের শরীরে পোলিও শনাক্ত হয়েছিল।

কর্মকর্তারা বলছেন, বর্তমান কেসটি এককভাবেই সংক্রমিত হয়েছে, সম্ভবত ওই ব্যক্তি মুখে খাওয়ার পোলিও টিকা (ওপিভি) গ্রহণ করেছিলেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের কোনো দেশ থেকে পোলিও টিকা গ্রহণ করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্র ২০০০ সাল থেকে মুখে খাওয়ার পোলিও টিকা স্থগিত রেখেছে। দেশটিতে এরপর থেকেই ‘ইনঅ্যাক্টিভেটেড’ টিকা (আইপিভি) ব্যবহার করা হচ্ছে, যা ইনজেকশনের মাধ্যমে শরীরে পুশ করা হয়।

আইপিভি টিকা নিষ্ক্রিয় পোলিও ভাইরাস দিয়ে তৈরি। আর মুখে খাওয়ার টিকা (ওপিভি) দুর্বলকৃত পোলিও ভাইরাস দিয়ে তৈরি। মুখে খাওয়ার টিকা থেকে অনেকসময় বিরুপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হতে পারে, যা উল্টো পোলিও সংক্রমণ ঘটিয়ে অঙ্গকে পঙ্গু করে দিতে পারে, যদিও এমনটি সচরাচর ঘটে না, বিরল।

১৯৫২ সালে যুক্তরাষ্ট্রে শিশুদের মধ্যে সংক্রামক রোগ হিসেবে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছিল পোলিও। পোলিও মহামারিতে হাজার হাজার শিশু পঙ্গু হয়ে গিয়েছিল। পঙ্গুত্ব ও শিশুমৃত্যু এই রোগকে পরিণত করেছিল বিভীষিকায়।

পরবর্তীতে ১৯৫৫ সালের ১২ এপ্রিল পোলিও টিকা উদ্ভাবন হলে রোগের প্রকোপ ঠেকাতে সক্ষম হয় দেশটি। সর্বশেষ ১৯৭৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রাকৃতিকভাবে পোলিও সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছিল।

এক সময় মহামারি হিসেবে পরিগণিত হলেও পরবর্তীতে তা বিশ্বের ১২৫টি দেশে স্থানীয় রোগে পরিণত হয়। টিকার কল্যাণে ১৯৮৮ সালের দিকে বিশ্বের ৯৯ শতাংশ পোলিও নির্মূল হয়ে যায়। বর্তমানে আফগানিস্তান ও পাকিস্তানে পোলিও সংক্রমণ দেখা যায়।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর