advertisement
আপনি পড়ছেন

প্রায় ছয় মাস ধরে ইউক্রেনে অভিযান চালাচ্ছে রাশিয়া। এখন পর্যন্ত অভিযান থামার কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। এ অবস্থার মধ্যেই চীন ও ভারতসহ বেশ কয়েকটি দেশ রাশিয়ায় সেনা পাঠাতে যাচ্ছে। সেখানে তারা একটি যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে। খবর দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

vostok 18ভোস্তক মহড়া ২০১৮

চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় গতকাল বুধবার জানিয়েছে, স্বাগতিক দেশের নেতৃত্বে ভোস্তক মহড়া নামের একটি যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নিতে চীন, ভারত, বেলারুশ, মঙ্গোলিয়া, তাজিকিস্তানসহ বেশ কিছু দেশের সেনাসদস্যরা রাশিয়ায় যাবে। তবে তাদের এই মহড়া বর্তমান আন্তর্জাতিক এবং আঞ্চলিক পরিস্থিতির সাথে কোনোভাবেই সম্পর্কিত নয় বলে পরিষ্কারভাবে বিবৃতিতে উল্লেখ করেছে।

মস্কো গত মাসে ৩০ আগস্ট থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময়ে ‘ভোস্টক’ (পূর্ব) অঞ্চলে মহড়া চালানোর ঘোষণা দেয়। এর আগে ২০১৮ সালে সর্বশেষ এ ধরনের মহড়া হয়েছিল। তখন চীন প্রথমবারের মতো এ মহড়ায় অংশ নেয়।

china russian armyচীন-রাশিয়ার সেনাসদস্য, ফাইল ছবি

চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বিবৃতিতে জানায়, মহড়ায় তাদের অংশগ্রহণ রাশিয়ার সাথে চলমান দ্বিপাক্ষিক বার্ষিক সহযোগিতা চুক্তির অংশ। এর উদ্দেশ্য হল অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর সেনাবাহিনীর সাথে ব্যবহারিক এবং বন্ধুত্বপূর্ণ সহযোগিতাকে আরও গভীর করা, অংশগ্রহণকারী পক্ষগুলোর মধ্যে কৌশলগত সহযোগিতার মাত্রা বৃদ্ধি করা এবং বিভিন্ন নিরাপত্তা হুমকির মোকাবিলা করার ক্ষমতা জোরদার করা।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা চালাতে শুরু করলে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের দেশগুলো মস্কোর ওপর নানা ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। চীন, ভারতসহ বেশ কিছু দেশ নিরপেক্ষ অবস্থান নিয়ে রাশিয়ার বিপক্ষে কোনো ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া থেকে বিরত থাকে। রাশিয়া থেকে তারা প্রচুর তেল কেনার মাধ্যমে দেশটির ওপর আরোপিত অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা অকার্যকর করায় ব্যাপক ভূমিকা রাখে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর