advertisement
আপনি পড়ছেন

পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে সম্ভাব্য সংঘাতে সর্বাত্মক শক্তি প্রয়োগের ঘোষণা দিয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সশস্ত্র বাহিনীর আংশিক মোবিলাইজেশনের আদেশ জারি করেছেন। আংশিক মোবিলাইজেশনের আওতায় প্রাথমিকভাবে তিন লাখ রিজার্ভ সৈন্য তলব করা হবে বলে জানিয়েছেন রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু।

putin tlsd suit ভৌগোলিক অখণ্ডতা হুমকির মুখে পড়লে রাশিয়া সব ব্যবস্থা নেবে বলে মন্তব্য করেছেন পুতিন

পূর্ব ও দক্ষিণ ইউক্রেনে রাশিয়াপন্থী রাজনীতিকরা রুশ ফেডারেশনে যোগদানের প্রশ্নে গণভোটের তারিখ ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পর আজ সকালে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন পুতিন। টেলিভিশনে সম্প্রচারিত ওই ভাষণে তিনি ইউক্রেন সংকট দীর্ঘায়িত করার জন্য পশ্চিমা বিশ্বকে দায়ী করেন।

পুতিন বলেন, বিশেষ অভিযান শুরুর পর আমরা প্রথমদিকে কূটনেতিক সমাধানে ইউক্রেনের আগ্রহ দেখেছি। ইস্তাম্বুলে দুই দফা বৈঠকেও তাদের ইতিবাচক মনোভাব ছিল। এরপর পশ্চিমারা সরাসরি ইউক্রেনকে রাশিয়ার সঙ্গে কোনো ধরনের সমঝোতা না করার আদেশ দিয়েছে। ওয়াশিংটন, লন্ডন, ব্রাসেলস থেকে কিয়েভকে সরাসরি চাপ দেওয়া হচ্ছে যাতে যুদ্ধটা রাশিয়ার ভূখণ্ডে চেপে দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, পশ্চিমাদের উদ্দেশ্য আমাদের দেশকে দুর্বল, বিভক্ত ও ধ্বংস করা। তারা খোলাখুলিই বলছে যে, ১৯৯১ সালে তারা সোভিয়েত ইউনিয়ন ভাঙতে সমর্থ হয়েছিল আর এখন সময় হয়েছে রাশিয়াকে ভাঙার। বহুদিন ধরে তারা এ চেষ্টা করছে। ককেসাসে তারা আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে উৎসাহ দিয়েছে, আমাদের সীমান্তের কাছে ন্যাটোর একের পর এক আক্রমণাত্মক অবকাঠামো গড়ে তুলেছে।

রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, সম্মিলিত পশ্চিম ও ন্যাটোর সঙ্গে তুলনা করলে প্রতিটি কম্পোনেন্টে আমাদের সশস্ত্র বাহিনী ও অস্ত্রভাণ্ডার অগ্রসর অবস্থায় রয়েছে। রাশিয়ার ভৌগোলিক অখণ্ডতা হুমকির মুখে পড়লে আমরা সব ধরনের ব্যবস্থা নেব। এটা কোনো ফাঁকা বুলি নয়। যারা পারমাণবিক ব্ল্যাকমেইলের কথা বলছেন, হাওয়া তাদের দিকেও প্রবাহিত হতে পারে।

ডনবাস অঞ্চলের বিষয়ে তিনি বলেন, যারা আমাদের কাছাকাছি আছে, সেসব মানুষ ঘাতকের হাতে খুন হতে থাকলে চেয়ে চেয়ে দেখার কোনো নৈতিক অধিকার আমাদের নেই। আমরা দোনেৎস্ক, লুহানস্ক, খেরসন ও জাপরোঝঝিয়ার মানুষের আত্মনিয়ন্ত্রণের ইচ্ছাকে স্বাগত জানাই। তাদের গণভোট আয়োজনে আমরা পূর্ণ নিরাপত্তা দেবো।

রুশ সশস্ত্র বাহিনীর আংশিক মোবিলাইজেশনের (সৈন্যযোজন) ঘোষণা দিয়ে পুতিন বলেন, এ সংক্রান্ত আদেশ জারি হয়েছে। কেবলমাত্র যাদের সামরিক প্রশিক্ষণ ও যুদ্ধের অভিজ্ঞতা আছে, তাদেরকে তলব করা হবে।

পুতিনের ভাষণের পর টেলিভিশনে এক সাক্ষাৎকারে রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেন, আংশিক সৈন্যযোজনের আওতায় কেবলমাত্র ১৮-৫০ বছর বয়সী প্রশিক্ষিত, অবসরপ্রাপ্ত ও অভিজ্ঞ সৈন্যদের তলব করা হবে। যারা পড়াশোনা করছে তারা শান্তিতে পড়াশোনা করুক। আমরা আপাতত ৩ লাখ রিজার্ভ সৈন্য চাইছি। ডনবাসের মুক্তাঞ্চলের সীমান্তে ইউক্রেনের সঙ্গে এক হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ কন্টাক্ট লাইনেও সেনা মোতায়েন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, ইউক্রেনের ২ লাখ এক হাজারের মতো সৈন্যের মধ্যে অর্ধেকের বেশি এরইমধ্যে হতাহত হয়েছে। ওদের বাহিনীর কিছু অবশিষ্ট নেই। আমরা এখন আর ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধ করছি না। এখন যুদ্ধ চলছে ন্যাটোর সঙ্গে। এতে লুকোছাপার কিছু নেই। ওরাই ৭০টি সামরিক স্যাটেলাইট, দুই শতাধিক বেসামরিক স্যাটেলাইট মোতায়েনের পাশাপাশি অস্ত্র, গোলাবারুদ, মিসাইল, প্রশিক্ষণ ও লোকবল দিয়ে যুদ্ধ চালাচ্ছে। ভাড়াটে বিদেশী যোদ্ধাদের কথা বাদই দিলাম।

এদিকে পুতিনের ঘোষণার প্রতিক্রিয়ায় হোয়াইট হাউস বলেছে, পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ে রুশ প্রেসিডেন্টের মন্তব্যকে যুক্তরাষ্ট্র গভীরভাবে নিয়েছে। তবে মার্কিন কৌশলগত নিবারক ফোর্সেসের প্রস্তুতির মাত্রা বৃদ্ধির কোনো প্রয়োজন আমরা দেখছি না।

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বলেছেন, আমরা সব পক্ষকে আবারও আলোচনার টেবিলে বসার এবং সব পক্ষের নিরাপত্তাজনিত উদ্বেগকে বিবেচনায় নিয়ে শান্তিপূর্ণ সমাধানের আহ্বান জানাচ্ছি।

এ ঘোষণা পরিস্থিতিকে অবনতির দিকে নেবে বলে মন্তব্য করেছেন জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালিনা বারবক। ইইউর এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স রিপ্রেজেনটেটিভ পিটার স্টানো বলেছেন, রাশিয়ার সঙ্গে ইইউর কোনো যুদ্ধ নেই, আমরা কেবল কিয়েভকে সাহায্য করছি। একইভাবে ব্রিটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেমস ক্লেভারলি বলেছেন, আমরা কখনো রাশিয়াকে হুমকি দিইনি, রুশ ভূখণ্ড দখল অথবা ভৌগোলিক অখণ্ডতা ক্ষুন্নের চেষ্টা করিনি। তবে আমরা কিয়েভকে সহযোগিতা অব্যাহত রাখব।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর