আপনি পড়ছেন

পূর্ব জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণ এবং হেবরনের ইব্রাহিমি মসজিদে গত রোববার ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীরা হামলা চালিয়েছে। এ সময় সেখানে ইহুদিরা নাচ-গান পরিবেশন করে। মুসলমানদের পবিত্র স্থানে এ ধরনের কাজে মুসলিম বিশ্বে তীব্র ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। খবর মিডলইস্ট মনিটর।

israeli settler dances at al aqsaমসজিদে ইব্রাহিমে গানের আয়োজন

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত একটি ভিডিওতে দেখা যায়, ইব্রাহিমি মসজিদে যখন বসতি স্থাপনকারীরা হামলা চালাচ্ছিল, তখন একজন নারী সেখানে নাচছিল। সে হাসতে হাসতে পপ মিউজিকের সাথে তাল মেলাচ্ছিল। মসজিদের ভেতর থেকে গানও শোনা যায়।

এ ঘটনাকে মসজিদের পবিত্রতা লঙ্ঘন আখ্যা দিয়ে ফিলিস্তিনিরা এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। ইসলামি শরিয়ত অনুসারে মসজিদে নাচ-গান সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।

protest of palastineফিলিস্তিনিদের প্রতিবাদ

ফিলিস্তিনি রেডিও স্টেশন আল-আকসা ভয়েস জানায়, কয়েক ডজন বসতি স্থাপনকারীকে ইব্রাহিমি মসজিদে নাচতে এবং গাইতে দেখা গেছে। মসজিদের অন্যান্য অংশেও একই ধরনের অনুষ্ঠান পালন করতে দেখা গেছে। আল-আকসার বাইরে বসতি স্থাপনকারীরা নিজেদের ছবি তোলার সময় ভিডিওটি প্রকাশ্যে চলে আসে। ইহুদিদের একটি দল আল আকসা মসজিদের ভেতরে ট্রাম্পেট বাজানো প্রত্যেক ইহুদির জন্য ৫০০ শেকেল (১৪০ ডলার) পুরস্কার চালু করেছে।

সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহ থেকে ইহুদিদের নববর্ষ রোশ হাশানাহ শুরু হওয়ার সময় থেকে ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীরা অধিকৃত পশ্চিম তীর এবং জেরুজালেমে মুসলিমদের পবিত্র স্থানগুলোতে অব্যাহতভাবে হামলা চালিয়ে আসছিল।

অন্যান্য সময় হামলা চললেও বছরের এ সময় এসে হামলার পরিমাণ বেড়ে যায়। ইব্রাহিম (আ.), ইসহাক (আ.) এবং ইয়াকুবের (আ.) সমাধিস্থল হিসেবে পরিচিত হেবরনের ইব্রাহিমি মসজিদ হামলাকারীদের নিয়মিতভাবে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়।

১৯৯৪ সালে হেবরণ মসজিদে হামলা চালিয়ে একজন চরমপন্থী ইহুদি ২৯ ফিলিস্তিনি মুসল্লিকে হত্যা করেছিল।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর