আপনি পড়ছেন

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বুধবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেলে কোভিড-১৯ এর আনুষ্ঠানিক টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে বাংলাদেশে। এরই মধ্যে দেশের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা টিকা নিতে শুরু করেছেন। পর্যায়ক্রমে সবাইকেই টিকা দেওয়া হবে।

a b m abdullah 1

এক্ষেত্রে স্বাস্থ্যকর্মী এবং হাসপাতালের সঙ্গে জড়িত সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে রাখা হয়েছে তালিকার শুরুতেই। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, শিক্ষক এবং গণমাধ্যম কর্মীদের টিকা দেওয়া হবে গুরুত্বের ভিত্তিতে।

টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে নানা কথা শোনা যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এবং কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় সমন্বয় কমিটির উপদেষ্টা অধ্যাপক ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ গণমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, অযথা ভয় না পেয়ে সবাই টিকা নিন। নেতিবাচক কথা কানে না নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন এই বিজ্ঞ চিকিৎসক। তবে কিছু বিশেষ ব্যক্তিরা টিকা নিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ।

১. ১৮ বছরের কম বয়সীরা।

২. গর্ভবতী ও স্তন্যদানকারী নারী।

৩. কেমো থেরাপি বা রেডিও থেরাপি নিচ্ছেন এমন ক্যান্সার রোগী।

৪. ওষুধে বা ইনজেনশনে অ্যালার্জি আছে এমন মানুষ।

গর্ভবতী ও স্তন্যদানকী নারী এবং ১৮ বছর কম বয়সীদের টিকা না নেওয়ার ব্যাপারে ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ বলেন, এদের ওপর এখনো করোনার টিকা প্রয়োগ করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়নি। ভবিষ্যতে এরা টিকা নিতে পারবে কি না সে বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ আসতে পারে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর