আপনি পড়ছেন

স্টেম সেল বদলের মাধ্যমে মরণব্যাধি এইডস তথা এইচআইভি ভাইরাস মুক্ত হয়েছেন লিউকোমিয়ায় আক্রান্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একজন নারী। গতকাল মঙ্গলবার দেশটির ডেনভারে এক বৈজ্ঞানিক সম্মেলনে এ ঘোষণা দিয়েছেন গবেষকরা। বিশ্বে একজন নারীর এইচআইভি মুক্ত হওয়ার প্রথম কোনো ঘটনা এটি।

hiv picএইচআইভির চিকিৎসা, ফাইল ছবি

রয়টার্স জানায়, এইডসের জন্য দায়ী এইচআইভির বিরুদ্ধে প্রকৃতিকভাবে সুরক্ষিত এক দাতার কাছ থেকে স্টেম সেল নিয়ে সুস্থ হয়েছেন মধ্যবয়সী ওই নারী। তার সুস্থ হয়ে ওঠার বিষয়টি সবিস্তারে প্রকাশ করা হয়। তিনি ১৪ মাস ধরে এইচআইভি মুক্ত রয়েছেন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত স্টেম সেল বদল করে ভাইরাসটি থেকে মুক্তি পেল ৩ ব্যক্তি।

গুরুতর মাইলয়েড লিউকেমিয়ায় আক্রান্ত হওয়ায় ক্যান্সারের কারণে ওই নারীর অস্থি মজ্জার রক্ত গঠনকারী কোষে শুরু হয়। চিকিৎসার জন্য নাভীর রক্ত নেওয়ার পর থেকে ভাইরাসটি মুক্ত ছিলেন তিনি। এর ফলে গত ১৪ মাসে তাকে এইচআইভি চিকিৎসায় ব্যবহৃত অ্যান্টিরেট্রোভাইরাল থেরাপি নিতে হয়নি।

hiv pic 1এইডস তথা এইচআইভি, ফাইল ছবি

খবরে বলা হয়, কোনো নারীর এভাবে এইচআইভি মুক্ত হওয়ার ঘটনা প্রথম হলেও আগে দুই জন পুরুষের ক্ষেত্রে এই সাফল্য এসেছে। আন্তর্জাতিক এইডস সোসাইটির সভাপতি শ্যারন লিউইন বলছেন, এই চিকিৎসার মধ্যমে প্রথম কোনো নারীর এইচআইভি মুক্ত হওয়ার সফলতা এসছে এবার।

সফল এই গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি ক্যালিফোর্নিয়া লস অ্যাঞ্জেলসের ডা. উবোনে ব্র্যাসন ও জন হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের ডা. দেবরা পারসদ। তাদের নেতৃত্বে ২৫ জন এইচআইভি আক্রান্তের কর্ড ব্লাডের দ্বারা স্টেম সেল থেরাপি দেওয়া হয়। এ ক্ষেত্রে ক্যান্সারসহ এইচআইভির চিকিৎসায় বিশেষ ফল মিলেছে।

বিজ্ঞানীদের বিশ্বাস, এই মানুষগুলোর শরীরে ইমিউনিটি হয়, যা এইচআইভি থেকে মুক্তির পথ সুগম করে। বোন ম্যারো ট্রান্সপ্ল্যান্ট সবার পক্ষে সম্ভব হয় না, হলেও এর মাধ্যমে এইচআইভি থেকে সেরে ওঠার ধারণাটি আরো পরিষ্কার হলো। এই সাফল্য আগামীতে চিকিৎসা ব্যবস্থা আরো এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর