advertisement
আপনি দেখছেন

দক্ষিণ কোরিয়ার সাগর সীমান্তের খুব কাছাকাছি গোলন্দাজ মহড়া চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। শনিবার খুব ভোরে দক্ষিণ কোরিয়ার উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের ব্যায়েংনিয়ং দ্বীপের সাগরে এই মহড়া চালায় পিয়ংইয়ং।

american destroyer

মহড়াকে কেন্দ্র করে ব্যায়েংনিয়ং দ্বীপ থেকে লোকজন সরিয়ে নেয় বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার সরকারি কর্মকর্তারা। মহড়ার সময় সাগর সীমান্তের খুব কাছাকাছি তীব্র আলোর ঝলক দেখা যায়। এ সব আলোর ঝলক উত্তর কোরিয়ার উপকূলীয় বাহিনীর ছোঁড়া কামানের গোলা বলে দাবি করেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা।

ওই কর্মকর্তা জানান, ব্যায়েংনিয়ং দ্বীপটি উত্তর কোরিয়ার মূল ভূখণ্ড থেকে ১২ মাইলের কম দূরে অবস্থিত। বিতর্কিত উত্তরাঞ্চলীয় লিমিট লাইন সীমান্তে দ্বীপটির অবস্থান বলে সিউল এই মহড়া নিয়ে খুব একটা উচ্চবাচ্য করে নি।

এদিকে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু বোমা এবং রকেট উৎক্ষেপণের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয়ায় দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট পাক গিউন-হাই পার্কের কঠোর সমালোচনা করেছে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি বা কেসিএনএ। এর সূত্র ধরে সীমান্তে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে আমেরিকার দ্বারস্থ হয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

 

আপনি আরও পড়তে পারেন

উত্তর কোরিয়ার ওপর আমেরিকার নতুন নিষেধাজ্ঞা

ট্রাম্পের খ্রিষ্টানত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুললেন পোপ

সিরিয়ায় মার্কিন হামলা : নিহত ৪০

sheikh mujib 2020