advertisement
আপনি পড়ছেন

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় শীর্ষ বৈঠক করতে আগ্রহী- এমন কোনো ইঙ্গিত দেখছে না হোয়াইট হাউস। গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেক সুলিভান এ তথ্য জানিয়েছেন। ফার্স নিউজ।

biden kimজো বাইডেন ও কিম জং উন

একটি প্রেস ব্রিফিংয়ে কথা বলছিলেন সুলিভান। এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাইডেন-উনের মধ্যে বৈঠক হতে পারে এমন ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি। কূটনৈতিক সম্পর্ক বাড়াতে বাইডেন এবং কিমের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক যুক্তরাষ্ট্র দেখতে চায় কি না- জানতে চাইলে তিনি বলেন, উত্তর কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অর্থপূর্ণ বা গঠনমূলক কূটনীতিতে জড়াবে এমন কোনো ইঙ্গিত নেই।

জাপান, অস্ট্রেলিয়া এবং ভারতের নেতাদের সাথে দেখা করতে আগামী রোববার জাপানে যাবেন বাইডেন ও সুলিভান। এর আগে আগে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক ইওলের সাথে দেখা করার জন্য দেশটির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন তারা।

jake sullivan visits brazilজেক সুলিভান

গত বুধবার সুলিভান বলেছিলেন, দক্ষিণ কোরিয়া এবং জাপান সফরের সময়সীমার মধ্যে উত্তর কোরিয়া একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা কিংবা এমনকি পারমাণবিক পরীক্ষা চালাতে পারে। 

২০১৮ সালে সিঙ্গাপুরে উত্তর কোরিয়া এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেতাদের মধ্যে প্রথমবারের মতো বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং কিম একটি যৌথ চুক্তি স্বাক্ষর করেছিলেন, যা দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের উন্নতিকে চিহ্নিত করে না। দুই নেতা পরের বছর হ্যানয়ে আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য মিলিত হন। কিন্তু নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে একটি চুক্তিতে পৌঁছাতে ব্যর্থ হন।

ওই সময় ট্রাম্প বলেছিলেন, কিমের সাথে সম্পর্ক প্রথমে রুক্ষ ছিল। কিন্তু পরে আমরা খুব ভালো ছিলাম। আমি তাকে পছন্দ করেছি, সে আমাকে পছন্দ করেছে। আমরা দুর্দান্ত ছিলাম।

এদিকে উত্তর কোরিয়া গত বৃহস্পতিবার একটি অজানা ক্ষেপণাস্ত্রের উৎক্ষেপণ করেছে, যা ছিল এই বছরের ১৬তম ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার অংশীদাররা পরীক্ষাগুলোকে উত্তেজক এবং পারমাণবিক ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি রোধে আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টার লঙ্ঘন বলে মনে করে।