advertisement
আপনি পড়ছেন

তীব্র দাবদাহে পুড়ছে জাপান। ১৮৭৫ সালে তাপমাত্রা রেকর্ড শুরুর পর থেকে গত তিনদিন জাপানের উষ্ণতম সময় কাটছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। দাবদাহে অসুস্থ হয়ে রাজধানী টোকিওতে অন্তত ৭৬ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আগামী দিনগুলোতে তাপমাত্রা আরও বাড়বে।

jap temp tlsd হিটস্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে নাগরিকদের মাস্ক না পরার আহ্বান জানিয়েছেন জাপানের কর্মকর্তারা

স্মরণকালের তীব্রতম দাবদাহ মোকাবেলায় উভয় সংকটে পড়েছে জাপান সরকার। দাবদাহ অব্যাহত থাকায় বিদ্যুৎ সংকট তীব্রতর হতে পারে জানিয়ে নাগরিকদের বিদ্যুৎ ব্যবহার হ্রাসের অনুরোধ জানিয়েছে জাপানের পরিষেবা দফতর। অন্যদিকে হিটস্ট্রোকের কারণে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তির লাইন ঠেকাতে যথাসম্ভব ঘরে থাকার ও এসি রাখার পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। কর্মকর্তারা হিটস্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে নাগরিকদের মাস্ক না পরার অনুরোধ করেছেন।

তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে দুই সপ্তাহ ধরে বেড়ে গেছে বিদ্যুৎ বিপর্যয়, দ্রুত কমছে গ্যাস রিজার্ভ। বিদ্যুৎ সংকট ও নাগরিক ভোগান্তির জেরে নিম্নমুখী হয়ে পড়েছে প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদার জনপ্রিয়তার পারদ। পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষে নির্বাচনের এক সপ্তাহ বাকি থাকতে প্রধানমন্ত্রীর গ্রহণযোগ্যতার হার ৫৫ শতাংশ থেকে ৫০ শতাংশে নেমেছে।

বুধবার পর্যন্ত টানা পাঁচদিন ধরে টোকিওতে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি তাপমাত্রা বিরাজ করছে। ১৮৭৫ সালে তাপমাত্রা রেকর্ড শুরুর পর থেকে কখনো জুন মাসে এত তাপমাত্রা দেখা যায়নি। তীব্র গরম ও দাবদাহ আগামী দিনগুলোতে আরও বাড়বে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছে জাপানের আবহাওয়া বিভাগ।

টেকিও থেকে উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত শহর ইসেসাকিতে ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এর আগে জাপানের কোথাও জুন মাসে এতো তাপমাত্রা রেকর্ড হয়নি।

জুন মাস জাপানে বর্ষাকাল হিসেবে বিবেচিত। কিন্তু জাপান আবহওয়া সংস্থা (জেএমএ) নির্ধারিত সময়ের ২২ দিন বাকি থাকতেই সোমবার থেকে টোকিও ও আশেপাশের অঞ্চলের জন্য বর্ষা মৌসুমের সমাপ্তি ঘোষণা করেছে। ১৯৫১ সালের পর আর কোনোবার এতো আগে সেদেশে বর্ষা মৌসুমের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি হয়নি।

এদিকে জাপানের পাশের দেশ রাশিয়ার আমুর অঞ্চলে দাবদাহের কারণে রেললাইন বেঁকে যাওয়ায় একটি মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত হয়েছে। আজ দুপুরে ট্রান্স-বৈকাল রেলওয়ের যগিবিভো-বলশায়া অমুতনায়া সেকশনে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রের বরাতে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, অত্যধিক তাপ ও অভ্যন্তরীণ চাপের কারণে রেল স্লিপার বেঁকে গিয়ে দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এতে একটি কন্টেইনারবোঝাই ট্রেনের ১৪টি ওয়াগন ছিঁড়ে পড়ে যায়।

শিল্প-যুগ শুরুর পর থেকে বৈশ্বিক তাপমাত্রা এরইমধ্যে ১ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়ে গেছে। জলবায়ু রূপান্তরের কারণে অতীতের তুলনায় দাবদাহের সংখ্যা, প্রকটতা ও স্থায়ীত্ব বেড়ে গেছে।